ঢাকা , রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
প্রবাসীদের দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর মালয়েশিয়ায় চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম প্রবাসীদের ঈদ উদযাপন বাস্তবতা খুঁজে পাওয়া দুষ্কর মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনা, চিকিৎসাধীন আরেক বাংলাদেশির মৃত্যু মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশির মৃত্যু নিউইয়র্কে জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে সার্কের মহাসচিবের সৌজন্য সাক্ষাৎ মালয়েশিয়ায় ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় মালয়েশিয়ায় বুধবার পবিত্র ঈদুল ফিতর অনুমতি ছাড়া আতশবাজি বিক্রি:মালয়েশিয়ায় ২ বাংলাদেশিসহ গ্রেপ্তার ৩ বাংলাদেশি কর্মীদের প্রশংসায় মালয়েশিয়ার সাবেক মন্ত্রী এম সারাভানান কুয়ালালামপুর-ঢাকা রুটে বিমান ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য

মালয়েশিয়ায় সংস্কৃতি চর্চায় বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া
  • আপডেটের সময় : ০৩:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪
  • / 65

 

শেকড় সন্ধানে নিজস্ব সংস্কৃতিচর্চায় কাজ করছে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন (এমবিএফএ)। অ্যাসোসিয়েশনের যাত্রা শুরু ২০১৪ সালে। মুষ্টিমেয় কিছু প্রবাসী পরিবারের নিবেদিত চেষ্টায় এটি একটি ছোট সংগঠন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। মালয়েশিয়ার রেজিস্ট্রার অব সোসাইটির (আরওএস) অধীনে নিবন্ধিত একটি অরাজনৈতিক, ধর্মনিরপেক্ষ, সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন এটি।

 

গত ১০ বছরের অক্লান্ত প্রচেষ্টার ফসল হিসেবে এটি আজ প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি বৃহৎ পরিবারে পরিণত হয়েছে। সংগঠনটি মালয়েশিয়ার বৈচিত্র মন্ডিত সমাজ ও সাংস্কৃতিক পরিবেশে দেশীয় সংস্কৃতি, আচার, ঐতিহ্য ও বাংলা ভাষা সংরক্ষণে সদা নিবেদিত।

 

এদিকে বাংলা সংস্কৃতির প্রচার এবং প্রসারে প্রবাসে বেড়ে ওঠা নবপ্রজন্মের বাঙালিদের মধ্যে আপন সংস্কৃতির পরিচয় ও বিকাশ ঘটানোর লক্ষ্যে অ্যাসোসিয়েশনের কয়েকজন সাহসী, অভিজ্ঞ সংস্কৃতি কর্মীর হাত ধরে ২০১৯ সালের নভেম্বরে আর্ট কালচার অ্যান্ড ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রাম (এসিএলপি) আত্মপ্রকাশ করে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে।

 

এসিএলপি বর্তমানে সংগীত, নৃত্য এবং বাংলা ভাষা- এ তিনটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি এর শিক্ষার্থীদের মনবিকাশের জন্য নিয়মিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় সংগীত, নৃত্য এবং বাংলা ভাষা- এ তিন বিষয়ে নবাগতদের ভর্তি ও প্রশিক্ষণে চলছে প্রচার প্রচারণা।

 

সোমবার (১ এপ্রিল ২০২৪) ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের একটি প্রতিনিধি দল মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো: শামীম আহসানের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠকে প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে হাইকমিশনারকে অবহিত করেন এবং সংগঠনের বর্ধিত কার্যক্রমের সুবিধার্থে মিশনের সহযোগিতা কামনা করেন নেতৃবৃন্দ। এ সময় হাইকমিশনার বাংলা সংস্কৃতি ও ভাষাকে বিদেশের মাটিতে প্রচার ও প্রচারণায় এমবিএফএর কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং সংগঠনের কার্যক্রমকে বেগবান করার লক্ষ্যে সম্ভাব্য সহায়তার আশ্বাস দেন হাইকমিশনার মো: শামীম আহসান।

 

এ সময় কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) প্রণব কুমান ভট্টাচার্য, কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) ও দূতালয় প্রধান ফারহানা আহমেদ চৌধুরী, প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) প্রণব কুমার ঘোষ, এবং প্রথম সচিব (রাজনৈতিক) রেহানা পারভীন, বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বৈঠকে, এমবিএফএর প্রতিনিধি দলের ডা: শংকর চন্দ্র পোদ্দার, মো: মাসুদুর রহমান, ক্যাপ্টেন জাকির হোসাইন, মোহাম্মদ শহীদুল হাসান,মাহফুজ কায়সার অপু, সন্জয় কুমার বশাক,তিশা কাবেজ ও মো: জাহঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন।

 

এমবিএফএর ইসি মেম্বার ডা: শংকরচন্দ্র পোদ্দার জানান, মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের অভিপ্রায় হলো মালয়েশিয়াতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে পারস্পরিক যোগসূত্র স্থাপন করা এবং বাংলা ভাষা, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে সংরক্ষণ করা। পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং সাংস্কৃতিক সমন্বয়ের মাধ্যমে মালয়েশিয়ান এবং বাংলাদেশিদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সেতুবন্ধন দৃঢ় করার সুযোগ তৈরি করাও একটি অন্যতম লক্ষ্য।

 

একই সাথে এ সংগঠনটি মালয়েশিয়া এবং তার বাইরে বাংলাদেশকে সুপরিচিত করার লক্ষ্যে অবিরত কাজ করে যাচ্ছে এ বিষয়গুলো নিয়েই হাইকমিশনার মো: শামীম আহসানের সাথে আমরা বৈঠক করেছি। বৈঠকে তিনি সংগঠনের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং ফোরামের কার্যক্রম আরো গতিশীল করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সব রকমের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন হাইকমিশনার।

শেয়ার করুন

মালয়েশিয়ায় সংস্কৃতি চর্চায় বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন

আপডেটের সময় : ০৩:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪

 

শেকড় সন্ধানে নিজস্ব সংস্কৃতিচর্চায় কাজ করছে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন (এমবিএফএ)। অ্যাসোসিয়েশনের যাত্রা শুরু ২০১৪ সালে। মুষ্টিমেয় কিছু প্রবাসী পরিবারের নিবেদিত চেষ্টায় এটি একটি ছোট সংগঠন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। মালয়েশিয়ার রেজিস্ট্রার অব সোসাইটির (আরওএস) অধীনে নিবন্ধিত একটি অরাজনৈতিক, ধর্মনিরপেক্ষ, সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন এটি।

 

গত ১০ বছরের অক্লান্ত প্রচেষ্টার ফসল হিসেবে এটি আজ প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি বৃহৎ পরিবারে পরিণত হয়েছে। সংগঠনটি মালয়েশিয়ার বৈচিত্র মন্ডিত সমাজ ও সাংস্কৃতিক পরিবেশে দেশীয় সংস্কৃতি, আচার, ঐতিহ্য ও বাংলা ভাষা সংরক্ষণে সদা নিবেদিত।

 

এদিকে বাংলা সংস্কৃতির প্রচার এবং প্রসারে প্রবাসে বেড়ে ওঠা নবপ্রজন্মের বাঙালিদের মধ্যে আপন সংস্কৃতির পরিচয় ও বিকাশ ঘটানোর লক্ষ্যে অ্যাসোসিয়েশনের কয়েকজন সাহসী, অভিজ্ঞ সংস্কৃতি কর্মীর হাত ধরে ২০১৯ সালের নভেম্বরে আর্ট কালচার অ্যান্ড ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রাম (এসিএলপি) আত্মপ্রকাশ করে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে।

 

এসিএলপি বর্তমানে সংগীত, নৃত্য এবং বাংলা ভাষা- এ তিনটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি এর শিক্ষার্থীদের মনবিকাশের জন্য নিয়মিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় সংগীত, নৃত্য এবং বাংলা ভাষা- এ তিন বিষয়ে নবাগতদের ভর্তি ও প্রশিক্ষণে চলছে প্রচার প্রচারণা।

 

সোমবার (১ এপ্রিল ২০২৪) ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের একটি প্রতিনিধি দল মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো: শামীম আহসানের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠকে প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে হাইকমিশনারকে অবহিত করেন এবং সংগঠনের বর্ধিত কার্যক্রমের সুবিধার্থে মিশনের সহযোগিতা কামনা করেন নেতৃবৃন্দ। এ সময় হাইকমিশনার বাংলা সংস্কৃতি ও ভাষাকে বিদেশের মাটিতে প্রচার ও প্রচারণায় এমবিএফএর কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং সংগঠনের কার্যক্রমকে বেগবান করার লক্ষ্যে সম্ভাব্য সহায়তার আশ্বাস দেন হাইকমিশনার মো: শামীম আহসান।

 

এ সময় কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) প্রণব কুমান ভট্টাচার্য, কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) ও দূতালয় প্রধান ফারহানা আহমেদ চৌধুরী, প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) প্রণব কুমার ঘোষ, এবং প্রথম সচিব (রাজনৈতিক) রেহানা পারভীন, বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বৈঠকে, এমবিএফএর প্রতিনিধি দলের ডা: শংকর চন্দ্র পোদ্দার, মো: মাসুদুর রহমান, ক্যাপ্টেন জাকির হোসাইন, মোহাম্মদ শহীদুল হাসান,মাহফুজ কায়সার অপু, সন্জয় কুমার বশাক,তিশা কাবেজ ও মো: জাহঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন।

 

এমবিএফএর ইসি মেম্বার ডা: শংকরচন্দ্র পোদ্দার জানান, মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের অভিপ্রায় হলো মালয়েশিয়াতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে পারস্পরিক যোগসূত্র স্থাপন করা এবং বাংলা ভাষা, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে সংরক্ষণ করা। পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং সাংস্কৃতিক সমন্বয়ের মাধ্যমে মালয়েশিয়ান এবং বাংলাদেশিদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সেতুবন্ধন দৃঢ় করার সুযোগ তৈরি করাও একটি অন্যতম লক্ষ্য।

 

একই সাথে এ সংগঠনটি মালয়েশিয়া এবং তার বাইরে বাংলাদেশকে সুপরিচিত করার লক্ষ্যে অবিরত কাজ করে যাচ্ছে এ বিষয়গুলো নিয়েই হাইকমিশনার মো: শামীম আহসানের সাথে আমরা বৈঠক করেছি। বৈঠকে তিনি সংগঠনের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং ফোরামের কার্যক্রম আরো গতিশীল করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সব রকমের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন হাইকমিশনার।