ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ৬ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :

প্রতারণার অভিযোগে মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশির কারাদণ্ড

প্রতারণার অভিযোগে মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার হওয়া বাংলাদেশি মোহাম্মদ সুফিয়ান। ছবি: সংগৃহীত।

Print Friendly, PDF & Email

 

প্রতারণার অভিযোগে মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশিকে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। মালয়েশিয়ার মেলাকা রাজ্যের আয়ার কেরোহ আদালতে মোহাম্মদ সুফিয়ান (৫২) নামের এ বাংলাদেশিকে ৭ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মঙ্গলবার (৬ জুন) মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে প্রবেশ এবং ছিনতাইয়ের মিথ্যা পুলিশি প্রতিবেদন তৈরির অভিযোগে ম্যাজিস্ট্রেট শারদা শিনহা সুলেইমান অভিযুক্ত বাংলাদেশি নাগরিক সুফিয়ানকে এ দণ্ড দেন।

সুফিয়ান আদালতে দোভাষীর মাধ্যমে দুটি অভিযোগ পাঠের পরপরই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। প্রথম অভিযোগে বলা হয়, অভিযুক্ত মোহাম্মদ সুফিয়ান একজন বাংলাদেশি নাগরিক, যিনি কোনো বৈধ পাসপোর্ট ছাড়াই মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করেন এবং অবৈধভাবে মেলাকায় বসবাস করছিলেন।

এরপর গত ২০ মে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মেলাকা রাজ্যের তেনগা জেলার তানজুং মিয়াক থানার তদন্ত অফিসে অন্যজনকে ফাঁসাতে একটি ছিনতাইয়ের মিথ্যা পুলিশি প্রতিবেদন দাখিল করেন।

মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট ১৯৫৯/৬৩ (সংশোধনী ২০০২)-এর ধারা ৬(১)(গ) অনুযায়ী অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করলে অনধিক ১০ হাজার রিঙ্গিত অর্থদণ্ড বা পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে এবং একই আইনের ৬(৩) ধারায় শাস্তিযোগ্য হবে।

দ্বিতীয় অভিযোগে বলা হয়, অভিযুক্ত বাংলাদেশি কর্পোরাল আইদাওয়াতি হুসিনের কাছে একটি মিথ্যা প্রতিবেদন তৈরি করেছিলেন। এই মিথ্যা প্রতিবেদনের ফলে তানজুং মিয়াক থানার তদন্ত অফিসার ইন্সপেক্টর মুহাম্মদ হাজিক ফাথেলি সাধারণ মানুষদের কাছে ছোট হয়েছেন বলেও সেখানে উল্লেখ করা হয়।

পুলিশ রিপোর্টে বলা হয়, দেশটির অভিবাসন বিভাগে অভিযুক্ত ওই বাংলাদেশির ফিঙ্গার প্রিন্ট এবং বায়োমেট্রিক পর্যালোচনায় দেখা যায়, অভিযুক্ত বাংলাদেশির মালয়েশিয়ায় বসবাসের কোনও নথিপত্র নেই।

Tag :
জনপ্রিয়

মালয়েশিয়ায় মৃত্যুদন্ড থেকে রেহাই পেলেন বাংলাদেশি

প্রতারণার অভিযোগে মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশির কারাদণ্ড

আপডেট: ০৭:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ জুন ২০২৩
Print Friendly, PDF & Email

 

প্রতারণার অভিযোগে মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশিকে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। মালয়েশিয়ার মেলাকা রাজ্যের আয়ার কেরোহ আদালতে মোহাম্মদ সুফিয়ান (৫২) নামের এ বাংলাদেশিকে ৭ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মঙ্গলবার (৬ জুন) মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে প্রবেশ এবং ছিনতাইয়ের মিথ্যা পুলিশি প্রতিবেদন তৈরির অভিযোগে ম্যাজিস্ট্রেট শারদা শিনহা সুলেইমান অভিযুক্ত বাংলাদেশি নাগরিক সুফিয়ানকে এ দণ্ড দেন।

সুফিয়ান আদালতে দোভাষীর মাধ্যমে দুটি অভিযোগ পাঠের পরপরই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। প্রথম অভিযোগে বলা হয়, অভিযুক্ত মোহাম্মদ সুফিয়ান একজন বাংলাদেশি নাগরিক, যিনি কোনো বৈধ পাসপোর্ট ছাড়াই মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করেন এবং অবৈধভাবে মেলাকায় বসবাস করছিলেন।

এরপর গত ২০ মে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মেলাকা রাজ্যের তেনগা জেলার তানজুং মিয়াক থানার তদন্ত অফিসে অন্যজনকে ফাঁসাতে একটি ছিনতাইয়ের মিথ্যা পুলিশি প্রতিবেদন দাখিল করেন।

মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট ১৯৫৯/৬৩ (সংশোধনী ২০০২)-এর ধারা ৬(১)(গ) অনুযায়ী অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করলে অনধিক ১০ হাজার রিঙ্গিত অর্থদণ্ড বা পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে এবং একই আইনের ৬(৩) ধারায় শাস্তিযোগ্য হবে।

দ্বিতীয় অভিযোগে বলা হয়, অভিযুক্ত বাংলাদেশি কর্পোরাল আইদাওয়াতি হুসিনের কাছে একটি মিথ্যা প্রতিবেদন তৈরি করেছিলেন। এই মিথ্যা প্রতিবেদনের ফলে তানজুং মিয়াক থানার তদন্ত অফিসার ইন্সপেক্টর মুহাম্মদ হাজিক ফাথেলি সাধারণ মানুষদের কাছে ছোট হয়েছেন বলেও সেখানে উল্লেখ করা হয়।

পুলিশ রিপোর্টে বলা হয়, দেশটির অভিবাসন বিভাগে অভিযুক্ত ওই বাংলাদেশির ফিঙ্গার প্রিন্ট এবং বায়োমেট্রিক পর্যালোচনায় দেখা যায়, অভিযুক্ত বাংলাদেশির মালয়েশিয়ায় বসবাসের কোনও নথিপত্র নেই।