1. admin@probashbarta.com : pbadmin :
  2. info@probashbarta.com : PBC Desk02 : PBC Desk02
  3. mhgbangla@gmail.com : Meraj Hossain Gazi : Meraj Hossain Gazi
যুক্তরাষ্ট্রে-আসিয়ান বিশেষ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও মানবসম্পদমন্ত্রী - প্রবাস বার্তা
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুয়েতে ৩১৫ জন পুরুষ ও মহিলা নার্স নিয়োগ করোনা প্রতিরোধের সকল বিধি-নিষেধ প্রত্যাহার করলো ওমান আমিরাতের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে শোক বইয়ে স্বাক্ষর করলেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী হজযাত্রীদের বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষা ২২ মে’র মধ্যে হজযাত্রী নিবন্ধন শেষ করতে হাবে’র অনুরোধ প্রবাসী লিটনকে দেশে ফেরাতে বিমানের টিকিট দিলেন মালদ্বীপ হাইকমিশনার মালদ্বীপে অবৈধ কর্মীদের বৈধকরণের অনুরোধ হাইকমিশনের লন্ডনে মারা গেলেন ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানের রচয়িতা মালয়েশিয়ায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ২ হাজারের অধিক গার্মেন্টস খাতে মেশিন অপারেটর নিচ্ছে জর্ডান

যুক্তরাষ্ট্রে-আসিয়ান বিশেষ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও মানবসম্পদমন্ত্রী

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:
  • Update Time : সোমবার, ৯ মে, ২০২২
  • ৩১৫ Time View

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে-আসিয়ান বিশেষ সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকোব ও মানবসম্পদমন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান। সারাভানান ওয়াশিংটন সফরের সময় জোরপূর্বক শ্রম সমস্যা মোকাবেলায় মালয়েশিয়ার প্রচেষ্টা তুলে ধরবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

১০ মে মঙ্গলবার শুরু হয়ে এ সফর শেষ হবে ১৩ মে শুক্রবার। সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকোব সহ আসিয়ানের রাষ্ট্রপ্রধানরা।

হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেনের সাথে “সাড়ে চার দশকের অংশীদারিত্ব” নিয়ে ১২ ও ১৩ মে আঞ্চলিক বিষয়গুলি নিয়ে কথা বলবেন। প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকোব মিয়ানমারসহ বেশ কিছু আঞ্চলিক ইস্যু উত্থাপন করবেন বলেও জানা গেছে।

সারাভানান এক বিবৃতিতে বলেন, মালয়েশিয়ার কোম্পানিগুলো এবং পণ্যগুলোকে তাদের সরবরাহ শৃঙ্খলে বাধ্যতামূলক শ্রমের অনুশীলন থেকে মুক্ত করার প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সাথে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার সুযোগগুলোও অন্বেষণ করবেন তিনি।সারাভানান আরও বলেন, “সফরের সময় আমি জেনেভা এবং লন্ডনে আমার সাম্প্রতিক সফরের পর জোরপূর্বক শ্রম সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএল)র প্রোটোকল ২৯ এর অনুমোদন জমা দেওয়ার জন্য বাধ্যতামূলক শ্রম উদ্যোগের এজেন্ডা অনুসরণ করব এবং একই বিষয়ে যুক্তরাজ্যের সাথে আলোচনা করব”।

এ ছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রাসঙ্গিক বিভাগগুলির সাথে এবং নির্ধারিত মার্কিন শ্রম বিভাগ এবং মার্কিন কাস্টমস এবং সীমান্ত সুরক্ষা, দায়িত্বশীল ব্যবসায়িক জোটের সাথে একটি অধিবেশন আলোচনা করবেন বলেও জানান এম সারাভানান।

উল্লেখযোগ্যভাবে, মালয়েশিয়া জোরপূর্বক শ্রম এবং মানব পাচারের সমস্যাগুলি মোকাবেলা করার প্রচেষ্টা জোরদার করেছে। মালয়েশিয়া বাধ্যতামূলক শ্রম নির্মূলের দিকে একটি বড় পদক্ষেপ নিয়েছে এবং অনুশীলনের বিরুদ্ধে প্রথম জাতীয় কর্ম পরিকল্পনা চালু করেছে।

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সহায়তায় মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় (এমওএইচআর) দ্বারা তৈরি করা হয়েছে  জোরপূর্বক শ্রম সংক্রান্ত জাতীয় কর্ম পরিকল্পনা (NAPFL) ২০২১-২০২৫, সচেতনতা, প্রয়োগ, শ্রম অভিবাসনের পাশাপাশি প্রতিকারের অ্যাক্সেস এবং ২০৩০ সালের মধ্যে মালয়েশিয়ায় জোরপূর্বক শ্রম নির্মূল করার লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।

এ দিকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আমন্ত্রণে ওয়াশিংটন ডিসিতে মার্কিন-আসিয়ান বিশেষ শীর্ষ সম্মেলনে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ান নেশনস (আসিয়ান) এর নেতারা যোগ দিচ্ছেন। বিশেষ শীর্ষ সম্মেলন অসিয়ানের প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী প্রতিশ্রুতি প্রদর্শন করবে, এই অঞ্চলের সবচেয়ে চাপের এবং চ্যালেঞ্জের টেকসই সমাধান প্রদানের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ভূমিকাকে স্বীকৃতি দেবে এবং যুক্ত রাষ্ট্র ও অসিয়ান সম্পর্কের ৪৫ বছরের স্মৃতিচারণ করবে। যা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় একটি শক্তিশালী, নির্ভরযোগ্য অংশীদার হিসেবে কাজ করা বাইডেন-হ্যারিস প্রশাসনের জন্য সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার।

কোভিড-১৯ প্রতিক্রিয়া এবং বৈশ্বিক স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, জলবায়ু পরিবর্তন, টেকসই উন্নয়ন, সামুদ্রিক সহযোগিতা, মানব পুঁজি উন্নয়ন, শিক্ষা এবং জনগণের মধ্যে সহযোগিতা সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা জোরদার করার উপায় নিয়ে আলোচনা করতে আসিয়ান নেতারা প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সাথে মিলিত হবেন। তারা অভিন্ন স্বার্থ, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ইস্যুতেও মত বিনিময় করবেন।

১৯৬৭ সালে প্রতিষ্ঠিত আসিয়ান, মালয়েশিয়া, ব্রুনাই, ইন্দোনেশিয়া, কম্বোডিয়া, লাওস, মায়ানমার, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড এবং ভিয়েতনাম নিয়ে গঠিত। এই শীর্ষ সম্মেলনটি মার্কিন-আসিয়ান সম্পর্ককে চিহ্নিত করবে, যা ১৯৭৭ সালে শুরু হয়েছিল। এটি হবে দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় নেতাদের সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একজন আমেরিকান রাষ্ট্রপতি আয়োজিত এই ধরনের দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলন।

শেষবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশেষ শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন করেছিল যখন বারাক ওবামা ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে ক্যালিফোর্নিয়ার রঞ্চো মিরাজের সানিল্যান্ড এস্টেটে আসিয়ান নেতাদের স্বাগত জানিয়েছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2022 Probashbarta.com
Theme Customized BY LatestNews