1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন

মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়াই মালয়েশিয়ার জন্য নিবন্ধন করছে ‘আমি প্রবাসী’ কর্তৃপক্ষ

বিশেষ প্রতিবেদক ও সুমন বিশ্বাস
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১
বামে- মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তি ও ডানে- আমি প্রবাসী'র বিজ্ঞাপন
Print Friendly, PDF & Email

 

মালয়েশিয়া যেতে এবার কর্মীদের বিএমইটির ডাটা ব্যাংকে নিবন্ধন বাধ্যতামূলক। অর্থাৎ বিএমইটির ডাটা ব্যাংকে নিবন্ধিত না হলে কেউ মালয়েশিয়া যেতে পারবেন না। তবে এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে টেলিভিশন ও জাতীয় পত্রিকাসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হবে বলে আগেই জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ডঃ আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন। এমনকি ২৩ ডিসেম্বর কয়েকটি জাতীয় পত্রিকায় জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো ( বিএমইটি) থেকে প্রচার করা এক বিজ্ঞপ্তিতে একই তথ্য জানানো হয়। সেই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করে মালয়শিয়াগামী কর্মীদের বিএমইটির ডাটাবেজে নাম নিবন্ধনের জন্য যথাসময়ে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় বিজ্ঞপ্তি প্রচার করা হবে।”

২৩ ডিসেম্বর পত্রিকায় দেয়া বিএমইটির বিজ্ঞপ্ত

কিন্তু মন্ত্রণালয়ের ঘোষণা বা অনুমতির অপেক্ষা না করেই নিবন্ধন শুরু করেছে ‘আমি প্রবাসী’ নামের অ্যাপের প্রতিষ্ঠানটি। ২১ ডিসেম্বর বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপস কর্তৃপক্ষ তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে  বিজ্ঞপ্তি দিয়ে মালয়শিয়া যেতে ইচ্ছুক কর্মীদের নিবন্ধন শুরু করেছে। শুধুতাই নয়, বিজ্ঞাপনটি ব্যপক প্রচারের জন্য, বুস্টও (অধিক প্রচারের জন্য অনলাইন ব্যবস্থা)  করা হয়েছে। শনিবার রাত পর্যন্ত বিজ্ঞাপনটি ১০ হাজারের বেশি লাইক, ২১৬ কমেন্ট ও ১৫৪টি শেয়ার হয়।

এদিকে, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত মালয়শিয়াগামী কর্মীদের নিবন্ধনের বিষয়ে কোন ঘোষণা দেয়া বা সিদ্ধান্ত হয়নি। কবে নাগাদ ঘোষণা আসবে তাও অনিশ্চিত। যেখানে মালয়েশিয়ায় কর্মী যাওয়ার পদ্ধতি এখনো ঠিক হয়নি, কোন পদ্ধতিতে কর্মী যাবে, কোন কোন কাজে কর্মী নেবে মালয়েশিয়া তাও চূড়ান্ত হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে ও মন্ত্রণালয়ের ঘোষণা ছাড়াই বিএমইটির নিবন্ধনের নামে ‘আমি প্রবাসী’ কর্তৃপক্ষ যেই প্রক্রিয়া চালু করেছে, তাতে কর্মীদের প্রতারিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এবিষয়ে যোগাযোগ করলে ‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপস এর কর্ণধার নামির আহমেদ বিজ্ঞাপনের বিষয়টি স্বীকার করেন। মালয়েশিয়াগামী কর্মীদের নিবন্ধন শুরুর বিষয়ে মন্ত্রণালয় জানে কিনা বা অনুমতি নিয়েছেন কিনা? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, “আমরা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, মন্ত্রণালয় জানার বিষয় কিছু নেই। মালয়েশিয়া যেতে হলে তো বিএমইটির ডাটাব্যাংকে সবাইকেই ঢুকতে হবে।”

মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য কী কী তথ্য দরকার বা কোন কাজে কী অভিজ্ঞতা লাগবে, সেই বিষয়ে এখনো চুড়ান্ত হয়নি। এখনো মালয়েশিয়া সরকারের পক্ষ থেকেও কোন পদ্ধতি জানানো হয়নি। তাহলে আপনারা নিবন্ধনের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিলেন কিসের ভিত্তিতে? এমন প্রশ্নে নামির আহমেদ বলেন, ” বিজ্ঞপ্তিটা আমাদের টিম দিয়েছে, এটার বিষয়ে টিমের সাথে কথা বলতে হবে। কোন অসংগতি থাকলে, প্রয়োজনে সংশোধন বা সরিয়ে ফেলা হবে। ”

যদিও গেলো পাঁচ দিনে এই বিজ্ঞাপন দেখে অন্তত কয়েক হাজার কর্মী নিবন্ধন করেছেন। এবং তাদের কাছ থেকে নিবন্ধন ফি নেয়া হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, আমি প্রবাসী কর্তৃপক্ষকে বিএমইটির পুরো ডাটা ব্যাংকের দায়িত্ব দেয়া হয়নি। এখন পর্যন্ত শুধু বিদেশগামীদের করোনা টিকা দেয়ার নিবন্ধনের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারা সকল বিদেশগামীদের নিবন্ধন করতে পারে না। আর মালয়েশিয়ার বিষয়ে এখনো তো কোন সিদ্ধান্তই হয়নি।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ দেশের বাইরে থাকায় এ বিষয়ে তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews