1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৩:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

আবুধাবি ফেরত ১১২ জনকে সরকারি খরচে পাঠানোর সুপারিশ

স্টাফ রিপোর্টার, প্রবাস বার্তা
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবি বিমানবন্দর থেকে ফেরত পাঠানো ১১২ বাংলাদেশি কর্মীকে সরকারি খরচে দেশটিতে পাঠানোর সুপারিশ করেছে সিভিল এভিয়েশন অথরিটি নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটি। এ বিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছে কমিটি। বুধবার দুপুরে সিভিল এভিয়েশন অথরিটি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ মফিজুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, যে সকল যাত্রীরা আবুধাবি যাওয়ার উদ্দেশ্যে বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর ৮৬৮ জন ফেরত গিয়েছেন বা যেতে পারেননি । এই কর্মীদের টিকেটের তারিখ পরিবর্তন করতে হবে এবং তাদের করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা আবার করতে হলে সরকারি খরচে করার সুপারিশ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান জানান, ছুটিতে থাকা আবুধাবি প্রবাসীরা uaeentry.ica.gov.ae এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে প্রয়োজনীয় তথ্য দিতে হবে। ফিরতি বার্তায় সবুজ এসএমএস আসলে সে সকল যাত্রীরা কোভিড-১৯  নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে ভ্রমন করতে পারবেন।

১১২ যাত্রীর ফেরত আসা প্রসঙ্গে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবি কর্তৃপক্ষ ১০ আগস্ট ঘোষণা দেয় দুবাই বাদে অন্য প্রদেশের ভিসা ধারীরা আবুধাবি বিমানবন্দর দিয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে দ্য ফেডারেল অথরিটি ফর আইডেন্টিটি অ্যান্ড সিটিজেনশিপ- আইইসিএ অ্যাপ্রুভাল লাগবে না । যেটা করোনাভাইরাস এর মধ্যে প্রবাসীদের ফেরত নেয়ার সুযোগ দেয়ার শুরুতে বাধ্যতামূলক ছিল। এরপর আরেকটি বিজ্ঞপ্তিতে আবুধাবি কর্তৃপক্ষ জানায়, অভিবাসী কর্মীরা দেশটিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে তাদের ভিসা স্ট্যাটাস যাচাই করতে হবে। এজন্য তারা একটি ওয়েবসাইটের লিংক uaeenrty.ica.gov.ae দিয়ে দেয়। কিন্তু উল্লেখিত যাত্রীরা সে বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত ছিলেন না। তথ্যগত সমস্যার কারণে এই যাত্রীরা ভিসা স্ট্যাটাস যাচাই করেননি। একইসাথে এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ আবুধাবি কর্তৃপক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য পায়নি। ফলে এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ  বোর্ডিং পাস ইস্যু করে। যাত্রী এবং এয়ারলাইন্স কতৃপক্ষের তথ্য ঘাটতির কারণে পরবর্তীতে আবুধাবি ইমিগ্রেশন ১১২ জনকে ফেরত পাঠিয়ে দেয়।

তদন্ত কমিটি কিছু সুপারিশ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে প্রবাসী কর্মীদের যাতায়াত, ভিসাসহ যাবতীয় তথ্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে সমন্বয় করে দূতাবাসের ওয়েবসাইটে হালনাগাদ করা।

প্রয়োজনে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে একটি ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু করা।

আবুধাবি বিমান বন্দরে অ্যাডভান্স প্যাসেঞ্জার ইনফরমেশন -এপিআই জনিত কোন সমস্যা ছিল কিনা তা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে যাচাই করতে পারে।

যে সকল প্রবাসী আবুধাবি থেকে ফেরত এসেছে সেই ১১২ জনকে সরকারি খরচে টিকিট সরবরাহ করে আবারো পাঠানোর ব্যবস্থা করা। এছাড়াও ৮৬৮ জন যাত্রী ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নানা জটিলতায় আবুধাবি যেতে পারেনি। এ সকল যাত্রীকে পরবর্তীতে যাওয়ার ক্ষেত্রে সরকারি খরচে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা ও ভিসা জনিত কোন সমস্যা থাকলে তার সমাধান করতে হবে।

ফেরত আসা ও যাত্রা বাতিল হওয়া প্রবাসীদের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় দ্রুত সংযুক্ত আরব আমিরাত পাঠানোর ব্যবস্থা করা।

সকল উড়োজাহাজ সংস্থা, ইমিগ্রেশন ও প্রবাসীক ডেস্ক এর মধ্যে তথ্য আদান-প্রদানে সমন্বয় ও গতিশীলতা নিশ্চিত করা।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews