1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইতালিতে সিজনাল ও স্পন্সর ভিসা: বাংলাদেশিদের যা জানা প্রয়োজন মার্কিন ফেডারেল কোর্টের বিচারপতি হলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নুসরাত বাংলাদেশ থেকে প্রক্রিয়াজাত খাবার-পোশাক-আসবাব নিতে আগ্রহী মেক্সিকো মালদ্বীপে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ গোলাপগঞ্জে ইউরোপ-বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদককে সংবর্ধনা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর ফরাজী মালয়েশিয়া শ্রমবাজার: রিক্রুটিং এজেন্সি ইস্যুতে নতুন করে চিঠি চালাচালি জেদ্দায় কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ঢাকা-শারজাহ রুটে বিমানের ফ্লাইট ২৫ জানুয়ারি থেকে মালদ্বীপে ফের বাড়ছে করোনার সংক্রমণ

মালয়েশিয়া প্রবাসীর পরিবারের ৪ সদস্য খুনে কেউ গ্রেফতার হয়নি

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২০
নিহত ৪ জনের পুরাতন ছবি
Print Friendly, PDF & Email

 

বিশেষ প্রতিনিধি, গাজীপুর থেকে: গাজীপুরের শ্রীপুরে মালয়েশিয়া প্রবাসীর দুই মেয়েসহ স্ত্রীকে ধর্ষণ শেষে প্রতিবন্ধি এক ছেলেসহ ৪জনকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায়, এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি। ভয়ঙ্কর এই হত্যাকাণ্ড কেন ঘটেছে তাও উদঘাটন সম্ভব হয়নি। শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সকালে প্রবাসীর বাবা আবুল হোসেন বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

জেলার শ্রীপুর উপজেলার জৈনাবাজার এলাকার আবদার গ্রামে বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) বিকেলে প্রবাসীর ছোট ভাই আরিফ ওই বাড়িতে গিয়ে লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে। নিহতরা হলেন, মালয়েশিয়া প্রবাসী কাজলের স্ত্রী ফাতেমা (৩৫), তার বড় মেয়ে নুরা (১৬), ছোট মেয়ে হাওরিন (১৪) ও প্রতিবন্ধী ছেলে ফাদিল (৬)। নিহত ফাতেমা ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক।

হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার ঘটনাস্থলে যান। পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘তিন সন্তানসহ প্রবাসীর স্ত্রী ফাতেমা নৃশংশভাবে খুন হয়েছে। তাদের প্রত‌্যেককে গলা কেটে হত‌্যা করা হয়েছে। মৃতদেহ দেখে মনে হচ্ছে তাদেরকে হত্যা করার পূর্বে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বুধবার মধ্যরাতের কোন এক সময় তাদের হত্যা করা হয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। আশাকরি শিগগিরই বিস্তারিত বলতে পারব।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য তারেক হাসান বাচ্চু জানান, প্রবাসী কাজলের বাড়ি ময়মনসিংহের পাগলা থানার লংগাইর ইউনিয়নের গোলাবাড়ী গ্রামে। কাজল জৈনাবাজারের আবদার গ্রামে জমি কিনে দোতলা বাড়ি নির্মাণ করেন। ওই বাড়ির দোতলায় কাজলের স্ত্রী তার সন্তানদের নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। ঐ গ্রামের এক প্রহরী জানান, হত্যাকান্ডের পর নিহত ফাতেমা ও তার এক কন্যার লাশ ছিলো অর্ধ উলঙ্গ। প্রবাসী কাজলের ভাতিজা নাঈম ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, তার চাচা কাজল ১৬ বছর মালয়েশিয়ায় প্রবাস জীবন শেষে ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক স্মৃতি ফাতেমাকে বিয়ে করে দেশে ফেরেন। দেশে তিনি কাপড়ের ব্যবসা শুরু করেন। তবে ব্যবসায় সুবিধা না করতে পেরে প্রায় ছয় বছর আগে তিনি আবারও মালয়েশিয়ায় চলে যান। সেই থেকে আবদার গ্রামের দোতলা বাড়িটি আগলে ছিলেন ফাতেমা। ভিনদেশে নৃশংসভাবে ধর্ষন ও হত্যার শিকার হলেন ইন্দোনেশিয়ান ঐ নারী স্মৃতি ফাতেমা।

শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ লিয়াকত আলী  সকালে জানান, পুলিশের বিভিন্ন বিভাগের সদস্যরা বিষয়টি তদন্ত করছে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, শিঘ্রই হত্যাকান্ডের মোটিভ বের করতে পারবে পুলিশ।

এদিকে,গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্যইকবাল হোসেন সবুজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে নৃশংস এই হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন ও দায়ীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান। তবে তিনি এই হত্যাকান্ডকে ষরযন্ত্রমূলক বলে মন্তব্য করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews