1. monir212@gmail.com : admin :
  2. user@probashbarta.com : helal Khan Probashbarta : Helal Khan
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ০৫:৩২ পূর্বাহ্ন

মালয়েশিয়ায় কর্মরত প্রবাসী কর্মীদের কাজের মূল্যায়ন করতে হবে

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯
Print Friendly, PDF & Email

 

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া: মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের কাজের মূল্যায়ন করতে হবে। বলছিলেন মালয়েশিয়ান নাগরিক কুয়েস্টার ফং। তিনি বলেন, মালয়েশিয়ায় স্ব-সাহসে কঠোর পরিশ্রম করে চলেছেন বাংলাদেশের শ্রকিরা। তাদের শ্রমের মূল্যায়ন অবশ্যই করতে হবে।

শুক্রবার রাতে গ্রাবে করে বাসায় ফিরছিলাম। গ্রাবের চালক মি: ফং আমার পরিচয় যেনে আলাপ শুরু করলেন। এক পর্যায় বাংলাদেশি কর্মীদের কাজের দক্ষতার প্রশংসা করলেন। এ সময় মি: ফং বললেন, এখানে কিন্তু সবাই ভাল জীবন খুঁজে পায় না। কারণ কখনও কখনও তারা শোষিত ও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় কাজ করছে। দু’দেশের সরকারের কিছু নীতি নির্ধারনের কারনে বাংলাদেশি শ্রমিকরা অনেক ঝামেলায় পড়ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

 

মি: ফং কিন্তু গ্রাব চালকই নন। তিনি একজন রিয়েলএ্যাষ্টেট নেগোশিয়েটর। পার্টটাইম গ্রাব চালান। ফং গর্বের সহিত বললেন, আমি বাংলাদেশি কর্মীদের সঙ্গে দীর্ঘ তিন বছর কাজ করেছি বিল্ডিং কন্সট্রাকশনে। তাদের কাজের দক্ষতা অপরিসীম। এসময় ফং আরো বললেন, আপনি হয়ত ভাবছেন আপনার দেশের শ্রমিকদের প্রশংসা করছি আপনাকে খুশি করতে। না সত্যিই তাদের কাছ থেকে  আমি কাজের দক্ষতা অর্জন করেছি। আজ আমি দুইটি কোম্পানীর মালিক। আর দামানসারা তার কোম্পানীতে ১২জন বাংলাদেশি কাজ করছেন। আমি তাদের নিজের আপন ভাইয়ের চাইতে বেশি আপন মনে করি। কারন তাদের শ্রমে ও তাদের দক্ষতায় আজ আমি দু’টি কোম্পানীর মালিক।

আমি ফংকে প্রশ্ন করলাম তা হলে আপনি গ্রাব .. বলতেই পুরোটা বলার আগেই হাসিঁ মূখে বললেন, আপনি যে প্রশ্ন করতে চাচ্ছেন আমি গ্রাব কেন চালাই? তাইত? হ্যাঁ। ফং বললেন, যখন আমি অবসর থাকি তখন রাস্তায় গাড়ি নিয়ে নেমে পড়ি। তাও বেশির ভাগ যাত্রি বাংলাদেশি।

এ দিকে দেশে থাকা পরিবার পরিজনদের আকাশচুম্বী চাওয়া-পাওয়ার অনেকটাই নির্ভর করে প্রবাসীদের উপার্জনের ওপর। হাসিমুখে তাদের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে যাচ্ছে দেশ এবং পরিবারকে।  কেউ কেউ পরিবারের মুখে হাসি ও স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনলেও অনেকেই প্রবাসে অসহায়ত্বের গ্লানি টানার মধ্যেও তাদের একটাই কথা পরিবার পরিজন ছেড়ে বিদেশে এসেছি টাকা রোজগার করতে।

শনিবার সরেজমিন কুয়ালালামপুর পিএনবি ১১৮ ভবনে গিয়ে দেখা গেছে, অভিবাসী শ্রমিকরা বীরদর্পে কাজ করছেন । কথা হয় তাদের সঙ্গে। মালয়েশিয়াবাসী কিছু অভিবাসী শ্রমিকের দিকে নজর রাখছেন এমন কয়েকজন মালয়েশিয়ান নাগরিকদের সঙ্গেও কথা হয়, তারা বলছেন পরবাসী হয়েও যারা আমাদের দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রেখেছেন,  যে চাকরিগুলি আমাদের মালয়েশিয়রা করেন না সেগুলি অভিবাসী শ্রমিকরা করছেন । তারা ফং এর মত একই কথা বললেন, অবশ্যই এসব পরবাসী শ্রমিকদের কাজের মূল্যায়ন করতে হবে।

তারা বলছেন, আমাদের জাতিগত অবস্থার পরিবর্তনের ফলে, আকাশচুম্বী এবং কাঠামোগুলি আকাশমন্ডলকে ডুবিয়ে দিচ্ছে পরবাসীরা। এই আকাশচুম্বি কাঠামোগুলো বেশিরভাগই এই শ্রমিকদের নির্মিত বলে মন্তব্য করলেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন মালয়েশিয়ান নাগরিক।

সুনামগন্জের হারুন মিয়া, নড়াইলের সত্ববাবু, রাজশাহীর সাজু মিয়া, কুষ্টিয়ার রফিজুল চলতি বছরের আগষ্ট মাস থেকে কুয়ালালামপুরের পিএনবি ১১৮ তলা বিল্ডিয়ের নির্মান প্রকল্পের ইলেক্ট্রিকেল ওয়ারিং সেকশনে কাজ করছেন। যেখানে বৈধপারমিট ও সিআইডিবি কাড ছাড়া কাজ পাওয়া খুবই মুশকিল। সেখানে এ চারজন বাংলাদেশি কাজ করছেন। শুধু এ চারজনই নয় বৈধপারমিটসহ শতশত লালসবুজ পতাকাবাহি গর্বিত সোনার ছেলেরা বীরদর্পে কাজ করে চলেছেন। হারুন মিয়া বলছেন, এ হাইরাজ বিল্ডিংএ কাজ নিতে অনেক বেগ পোহাতে হয়েছে। কাজ পেয়েছি।

হারুন মিয়া বলেন, আমরা যারা বাংলাদেশি এখানে কাজ করছি কাজের দক্ষতা দেখে কর্তৃপক্ষ খুব খুশি। তার সাথে সূর মিলালেন কুষ্টিয়ার রফিজুল। বললেন, বিদেশে এসেছি টাকা ইনকাম করতে। শ্রমদিয়ে যাচ্ছি।রফিজুলের একটাই দু:খ, আগষ্ট মাস থেকে এখানে কাজ করছি।

ইন্দোনেশিয়া, নেপাল, মালয়েশিয়ান, চায়নাসহ আরো কয়েকটি দেশের শ্রমিকরা কাজ করছেন, তাদের দেশের দূতাবাসের সংশ্লিষ্ট কর্মকতার্রা প্রতি সপ্তাহে এসে তাদের খোজঁ খবর নিচ্ছেন। এতে তাদের কাজের উৎসাহ বাড়ে। শুধু আমরাই অবহেলায় রয়ে গেলাম। আমাদের দূতাবাসের কেউই আমাদের খোজঁ রাখেনা। বিদেশে আমরা শ্রমের বিনিময়ে দেশকে দিয়ে যাচ্ছি । কিন্তু দেশের চালকরা আমাদের লোকদেখানো স্মৃতিচারনে ব্যস্ত ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews