1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইতালিতে সিজনাল ও স্পন্সর ভিসা: বাংলাদেশিদের যা জানা প্রয়োজন মার্কিন ফেডারেল কোর্টের বিচারপতি হলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নুসরাত বাংলাদেশ থেকে প্রক্রিয়াজাত খাবার-পোশাক-আসবাব নিতে আগ্রহী মেক্সিকো মালদ্বীপে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ গোলাপগঞ্জে ইউরোপ-বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদককে সংবর্ধনা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর ফরাজী মালয়েশিয়া শ্রমবাজার: রিক্রুটিং এজেন্সি ইস্যুতে নতুন করে চিঠি চালাচালি জেদ্দায় কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ঢাকা-শারজাহ রুটে বিমানের ফ্লাইট ২৫ জানুয়ারি থেকে মালদ্বীপে ফের বাড়ছে করোনার সংক্রমণ

মালয়েশিয়ার আদালতে ৪ বাংলাদেশি নারীর কারাদন্ড

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯
Print Friendly, PDF & Email

 

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া: মালয়েশিয়ার আদালতে চার বাংলাদেশি নারীসহ ১৬২ জন নারিকে কারাদন্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

বুধবার (১৩ নভেম্বর) কুয়ালালামপুরের একটি আদালতের বিচারক হারিদশাম মোহাম্মদ ইয়াসিন এদের ২৫ থেকে ৩০ দিন পর্যন্ত কারাদন্ড আদেশ দেন। কারাদন্ড প্রাপ্তদের মধ্যে ১৫২ জন থাই, ৪জন বাংলাদেশি এবং ৬ জন কোরিয়া ও লাওসের নাগরিক।

আদালত সূত্র জানায়, গত ৩ আগস্ট স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১১টার দিকে জালান কিলাং লামার তিনটি নাইট ক্লাবে অভিযান চালিয়ে দেহ ব্যবসার অভিযোগে ১৬২ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে পুলিশের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, মানব পাচার চক্রের কবলে পড়ে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের নারিরা মালয়েশিয়ায় এসে দেহ ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ছে। প্রতিদিন কোনো না কোনো স্থানে পুলিশের অভিযানে ধরা পড়ছে এসব নারি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, দেশটির বিভিন্ন সেফ হোমে এ পর্যন্ত আটক রয়েছেন প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ বাংলাদেশি নারি। আটককৃত নারিদের কাছ থেকে পাচার কারিদের পরিচয় জানতে জিঙ্গাসাবাদ করছে পুলিশ।

এদিকে, বেতন না দিয়ে দীর্ঘদিন জিম্মি করে রেখে কাজ করতে বাধ্য করা হয়েছে এমন ১২ বাংলাদেশিসহ ১৮ জন শ্রমিককে উদ্ধার করেছে মালয়েশিয়ার পুলিশ। উদ্ধার হওয়া ১৮ জনের মধ্যে ১২ জন বাংলাদেশি এবং ৬ জন মিয়ানমারের নাগরিক ছিলেন।

দেশটির একটি সবজি ফ্যাক্টরিতে তারা কর্মরত ছিলেন। ওই ঘটনায় ২ জন নারী মালিককে আটক করা হয়েছে এবং পরে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে ২ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘ দুই মাস কাজ করলেও কোনো বেতন পাননি তারা। প্রতিদিন সকাল ৮ থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত কাজ করতে বাধ্য করত মালিকপক্ষ। বেতন চাইলেই বিভিন্ন টালবাহানাসহ বলত- ’’যে দিন দেশে যাবি, সেই দিন বেতন দেব।’’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews