1. monir212@gmail.com : admin :
  2. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  3. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে পাসপোর্ট-ভিসা কার্যক্রম ফের শুরু মাদ্রিদে বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতির নতুন কমিটির অভিষেক প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পেতে ইতালি আওয়ামীলীগ নেতারা ফিনল্যান্ডে বৃক্ষরোপণ খাতে ৩২ হাজার বিদেশি কর্মী নিয়োগ দেবে মালয়েশিয়া মালয়েশিয়ায় স্বদেশী অপহরণের দায়ে ৪ বাংলাদেশির মৃত্যুদন্ড হতে পারে মালয়েশিয়ায় খুলছে কর্মক্ষেত্র, স্বস্তিতে প্রবাসী কর্মীরা যাত্রীদের সঙ্গে মালয়েশিয়া দিবস উদযাপন মালয়েশিয়ার টেকসই অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা রয়েছে বিদেশি শ্রমিকদের এপিএ-তে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের প্রথম স্থান অর্জন বিমানবন্দরের পিসিআর ল্যাব বসছে তিন দিনে, দায়িত্ব পেল ৭ প্রতিষ্ঠান

মালয়েশিয়ায় করোনায় দুই বাংলাদেশি অধ্যাপকের মৃত্যু

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া :
  • প্রকাশিত : সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১
Print Friendly, PDF & Email

 

মালয়েশিয়ায় শুধু বাংলাদেশের সাধারণ কর্মীই নয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন অনেক মেধাবী প্রফেসর। মালয়েশিয়া আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইজন বাংলাদেশি মেধাবী শিক্ষকের প্রাণ গেল করোনায়। এই দুইজন শিক্ষক হিসেবে খুবই প্রভাবশালী ও স্বনামধন্য ছিলেন।

তাদের মৃত্যুতে ছাত্র-শিক্ষকদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। প্রফেসর ড. এ আহাদ ওসমান গণির শোক শেষ হতে না হতেই অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ড. ইশতিয়াক হোসাইন মৃত্যুবরণ করলেন। উভয়েই করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। তাই নিয়ম অনুযায়ী লাশ মালয়েশিয়াতেই দাফন করতে হচ্ছে। এ ধরনের মেধাবী সন্তানদের মৃত্যু নিঃসন্দেহে দেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

কেননা বিদেশে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে শ্রেষ্ট মেধা, সর্বোচ্চ শ্রম এবং উৎকৃষ্ট দক্ষতার প্রকাশ ঘটাতে হয়। এ রকম অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন বিষয়ে প্রায় অর্ধশত শিক্ষক আছেন।

কুয়ালালামপুরের পেরদানা বিশ্ববিদ্যালয়ে গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ মেডিসিনের ডেপুটি ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নাজমুল হাসান মাজিজ বলেন, ‘বিশ্ব্যবিদ্যালয়ে বাংলাদেশের যে অবস্থান ছিল এই দুই সহকর্মীর অকাল মৃত্যুতে যে ক্ষতি হলো তা অপূরণীয়। এখানে আমাদের চরম প্রতিযোগিতা করেই আন্তর্জাতিক মানদন্ড বজায় রাখতে হয়।

তিনি বলেন, ‘এই দুইজন সহকর্মীর অকাল মৃত্যু প্রমাণ করেছে তারা করোনা কালেও শিক্ষকতায় কতটা নিবেদিত ছিলেন। এই সময়ে আমাদের সতর্ক থাকার কোনো বিকল্প নেই।

উল্লেখ্য, মেধা-শিক্ষকতা ও পরিশ্রমের মাধ্যমে মালয়েশিয়ায় বিশেষ অবস্থান তৈরি করলেও সংখ্যাগরিষ্ট সাধারণ বাংলাদেশি প্রবাসীদের মাঝে অজানায় রয়ে গেছেন এসব শ্রেষ্ঠ সন্তানেরা। সেন্টার ফর এন আরবির প্রেসিডেন্ট এস এম শেকিল চৌধূরী বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় দুইজন মেধাবী শিক্ষকের অকাল মৃত্যু আমাদের প্রবাসীদের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।

কেননা এ ধরনের প্রভাবশালী ব্যক্তিরা নীরবে দেশের দূতের কাজ করে থাকেন। তাদের গ্রহনযোগ্যতা দিয়ে সে দেশের প্রশাসন, সমাজ ও প্রভাবশালীদের সাথে উত্তম বোঝাপড়া তৈরি করেন যা দেশের ও প্রবাসীদের স্বার্থ রক্ষায় অভাবনীয় কাজ করে। যারা জীবিত আছেন তাদের অনুরোধ করব নিজদের ভাবমূর্তি সমুজ্জ্বল করতে পথপ্রদর্শক বা উপদেষ্টার ভূমিকা নিয়ে এগিয়ে আসবেন।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews