1. monir212@gmail.com : admin :
  2. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  3. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে পাসপোর্ট-ভিসা কার্যক্রম ফের শুরু মাদ্রিদে বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতির নতুন কমিটির অভিষেক প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পেতে ইতালি আওয়ামীলীগ নেতারা ফিনল্যান্ডে বৃক্ষরোপণ খাতে ৩২ হাজার বিদেশি কর্মী নিয়োগ দেবে মালয়েশিয়া মালয়েশিয়ায় স্বদেশী অপহরণের দায়ে ৪ বাংলাদেশির মৃত্যুদন্ড হতে পারে মালয়েশিয়ায় খুলছে কর্মক্ষেত্র, স্বস্তিতে প্রবাসী কর্মীরা যাত্রীদের সঙ্গে মালয়েশিয়া দিবস উদযাপন মালয়েশিয়ার টেকসই অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা রয়েছে বিদেশি শ্রমিকদের এপিএ-তে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের প্রথম স্থান অর্জন বিমানবন্দরের পিসিআর ল্যাব বসছে তিন দিনে, দায়িত্ব পেল ৭ প্রতিষ্ঠান

মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরতে প্রবাসীদের ভোগান্তি

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া :
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১
Print Friendly, PDF & Email

 

মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরতে প্রবাসীদের ভোগান্তির শেষ নেই। ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা আগে বিমান বন্দরে গেলেও সারতে পারছেন না ইমিগ্রেশনের প্রক্রিয়া। কারণ দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে বাড়ি ফেরা হচ্ছে না অনেকের।

শত শত প্রবাসী বিমান বন্দরেই বসে থাকতে হচ্ছে। এমন অবস্থায় ইমিগ্রেশনের ভিড় এড়াতে কেএল আইএ-১, কেএল আই এ-২ তে বসানো হবে আরও ২০টি কাউন্টার। এমনটি জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন মহা-পরিচালক দাতুক খায়রুল দাযায়মি দাউদ। অতিরিক্ত বিশেষ কাউন্টার থেকে একসঙ্গে ৮৫০ থেকে ১ হাজার লোকের সেবা নেওয়ার মতো জায়গা হবে বলে আশা করছেন ইমিগ্রেশন মহা-পরিচালক।

দেশটিতে বসবাসরত অবৈধ অভিবাসীদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে চলমান রিক্যালিব্রেশন প্রোগ্রামের মাধ্যমে ইমিগ্রেশনের অনুমতি ছাড়াই নিজ দেশে ফিরতে এ উদ্যোগ নেয় দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ। ৫ জুলাই থেকে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের (কেএলআইএ) তিনটি স্টেশনে ২৪ ঘণ্টা ই-কাউন্টারগুলো পরিচালিত হয়ে আসছিলো। অনলাইন অ্যাপয়েন্টমেন্ট সিস্টেমের (এসটিও) মাধ্যমে ফ্লাইটের সময়কালের কমপক্ষে ছয় ঘণ্টা আগে অনুমতি ছাড়াই অভিবাসীরা কাউন্টার ছাড়ার কথা থাকলেও অধিক ভিড়ে ন্যুজ প্রবাসীরা। কেউ বা বিমানে চড়ে দেশে আসতে পারছেন আবার কেউবা ইমিগ্রেশনের ভিড়ে থেকেই গেছেন। বিমান ছাড়া আর হচ্ছে না। বন্দরের ফ্লোরেই বসে রয়েছেন। আবার বসে থাকার মধ্যে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

ইমিগ্রেশনের মহাপরিচালক দাতুক খায়রুল দাযাইমি দাউদ বলেছেন, দীর্ঘকাল অপেক্ষা করার পর অনুমতি ছাড়াই অভিবাসীদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। এ সুযোগ দ্রুততম সেবা দানে মোট বিশটি কাউন্টার বসানো হবে। ৯৮ হাজার ১৯৪ জন দেশে যাওয়ার জন্য নিবন্ধিত হয়েছেন।

স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে অভিবাসীদের প্রয়োজন স্ব স্ব দূতাবাস কর্তৃক অনুমোদিত বৈধ ভ্রমণের দলিল ও এয়ার টিকিট। এছাড়া ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড বা টাচ এন ই-এর মাধ্যমে ৫০০ রিঙ্গিত জমা দিতে হবে। লাগবে করোনার আরটি-পিসিআর পরীক্ষার স্লিপ।

এদিকে যাদের পাসপোর্ট নেই এমন প্রবাসীরা ৫ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত দূতাবাস থেকে ট্রাভেল পাস নিয়েছেন প্রায় দুই শ’ জন। এছাড়া কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত মোট তিন হাজার ট্রাভেল পাস দূতাবাস থেকে দেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রে জানা গেছে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews