1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪২ অপরাহ্ন

বিদেশগামীদের যেসব পরামর্শ দিচ্ছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ

প্রবাস বার্তা ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শনিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২১
Print Friendly, PDF & Email

 

সারাদেশে করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে গেছে। এখন বিদেশ যাওয়ার উদ্দেশ্যে যারা কোভিড পরীক্ষা করাচ্ছেন তাদের অনেকেই কোভিড পজিটিভ হয়ে যাচ্ছেন। অর্থাৎ তারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গেছেন।

তারপরও প্রতিদিনই এরকম যাত্রীদের অনেকে বিমানবন্দরে চলে আসছেন। কেউ কেউ মনে করছেন, আমার তো কোন সমস্যা নেই। তার মানে আমার করোনা হয়নি। নিশ্চয়ই রিপোর্ট ভুল দিয়েছে৷  কেউ আশাবাদী যে রিপোর্টে কোভিড পজিটিভ হলেও বিমানবন্দরে সরকারি লোকজন এতকিছু দেখবে না।

কেউ আবার কম্পিউটার এক্সপার্টদের কাছে যাচ্ছেন, যারা ম্যাজিকের মত তাদের কোভিড পজিটিভ রিপোর্টকে নেগেটিভ বানিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু এ যাত্রীরা এটা বোঝেন না যে, তাদের কোভিড রিপোর্ট বিমানবন্দরে অন্তত দুই জায়গায় যাচাই করা হবে। যতই চালাকি করে পজিটিভ রেজাল্টকে নেগেটিভ বানানো হোক না কেন, তা ধরা পড়বেই। আর ধরা পড়লে বিদেশ যাওয়া বন্ধ। এর পাশাপাশি জরিমানাও গুনতে হবে।

যারা কোভিড পরীক্ষা করিয়ে পজিটিভ রেজাল্ট প্রাপ্ত হন তাদের বেশিরভাগেরই কোন শারীরিক সমস্যা থাকে না। এরকম ব্যক্তিদেরকে বেশিরভাগ এয়ারলাইন্স যাত্রী হিসাবে নিবে না। বেশিরভাগ বিমানবন্দর তাদেরকে প্রবেশ ও অবস্থানের অনুমতি দিবে না। এছাড়া অধিকাংশ দেশ তাদেরকে সেই দেশে প্রবেশের অনুমতিও দিবে না।

অনেকে সরকারি প্রতিষ্ঠানে কোভিড পরীক্ষা করিয়ে পজিটিভ রেজাল্ট পাওয়ার পর কম পরিচিত কোন প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে আবার পরীক্ষা করিয়ে কোভিড নেগেটিভ হওয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেন। তবে এভাবে চেষ্টা করেও কোন লাভ নেই। কারণ করোনা মহামারির অবস্থা এখন এমনই যে যারা কোভিড পরীক্ষা করাচ্ছেন তাদের মধ্যে প্রতি চারজনে একজন কোভিড পজিটিভ হিসাবে সনাক্ত হচ্ছেন। সুতরাং রেজাল্ট পজিটিভ আসলে পাগল হয়ে ছোটাছুটি করা অর্থহীন।

কোভিড পজিটিভ হওয়া সত্ত্বেও যারা বিদেশযাত্রার আশায় বিমানবন্দরে চলে আসছেন, তারা স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা করেন না। ম্যাজিস্ট্রেটের সামনেও তারা নাকের নীচে বা থুতনিতে মাস্ক নামিয়ে রেখে কথা বলার চেষ্টা করেন। সার্জিক্যাল মাস্ক নাকের উপর চাপিয়ে রাখার জন্য যে নোজবার থাকে সেটির ব্যবহারও তারা জানেন না। সারাদিন থুতনিতে মাস্ক বেধে ঘুরে বেড়ানোর পর সেটি ঢিলা ও ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে যায়। এরকম ব্যক্তিদের কোভিড পরীক্ষা করালে যে রেজাল্ট পজিটিভ আসবে সেটাই তো স্বাভাবিক।

যাদের জন্য বিদেশ যাওয়াটা অতীব গুরুত্বপূর্ণ তাদের উচিত কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা। গ্রামের মানুষের করোনা হয় না, গরীবের করোনা হয় না, শ্রমজীবী মানুষের করোনা হয় না, করোনা শুধু এসির ভিতরে শুয়ে বসে থাকা বড়লোকদের হয়, করোনা বলে কিছু নাই, সবই ব্যবসার ধান্দা – এরকম বিশ্বাস যারা ধারণ করেন তাদের বিদেশ যাওয়ার চেষ্টা না করাই ভাল।

যে কেউ করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন, আক্রান্ত হলেও কোন লক্ষণ নাও থাকতে পারে, লক্ষণ না থাকা মানেই করোনামুক্ত নয়- এটা বিশ্বাস করেই স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। মনে রাখবেন, বিদেশযাত্রার আগে কোভিড টেস্ট করানোর পর রেজাল্ট পজিটিভ চলে আসলে বিদেশ যাওয়া যাবে না। সিস্টেমকে ফাকি দেওয়ার কোন প্রচেষ্টাই তখন কাজে আসবে না।

 

  • সূত্র- বিমানবন্দর ম্যাজিস্ট্রেট। 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews