1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

মালয়েশিয়ায় অনিবন্ধিত বিদেশি কর্মীদের সাধারণ ক্ষমার অনুরোধ

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া :
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
Print Friendly, PDF & Email

 

মালয়েশিয়ায় বিনা মূল্যে ঠিকা দেয়ার আগে অনিবন্ধিত বিদেশিদের সাধারণ ক্ষমার অনুরোধ জানিয়েছেন ক্লাংয়ের সাংসদ চার্লস সান্টিয়াগো। শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) অনিবন্ধিত অভিবাসী কর্মীদের বিনা মূল্যে ঠিকা দানের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে সাংসদ বলেন, দেশে প্রায় তিন মিলিয়ন অনিবন্ধিত অভিবাসী রয়েছেন। অভিবাসন নীতিতে আগে তাদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) কোভিড-১৯ নির্মূলে দেশের নাগরিকদের পাশাপাশি নিবন্ধিত ও অনিবন্ধিত বিদেশি নাগরিকদের বিনা মূল্যে ঠিকা দেয়ার ঘোষণা দেয় সরকার। এ ঘোষণার আলোকে  সাংসদ চার্লস সান্টিয়াগো স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ঠিকাদান কর্মসূচী শুরুর আগে অনিবন্ধিত বিদেশিদের সাধারন ক্ষমা দিতে হবে।

কারন হিসেবে এ সাংসদ বলছেন, চলমান মহামারি শুরুর প্রথম দিকে বলা হয়েছিল বৈধ-অবৈধ বিদেশি অভিবাসী করোনা পরিক্ষা করতে হবে। সে সময় তাদের কোনো পুলিশি হয়রানি বা গ্রেফতার করা হবেনা। এমন প্রতিশ্রুতি দেয়ার পরও অবৈধ অভিবাসীদের হয়রানি ও গ্রেফতার করা হয়েছিল। অভিবাসীদের প্রতি সরকার কর্তৃক এমন প্রতারনার পুনরাবৃওি যেন না ঘটে এ নিশ্চয়তা দিতে হবে সরকারকে।

এদিকে সিনিয়র সুরক্ষা মন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব, গত বছরের মার্চ মাসে কুয়ালালামপুরের শ্রী পেটালিং মসজিদে একটি তাবলিগের সমাবেশে অংশ নেওয়া সকল অনিবন্ধিত অভিবাসীকে কোভিড -১৯ পরীক্ষার জন্য উত্সাহিত করে ছিলেন এবং তাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, যে তাদের শাস্তি হবে না। এর পরে মে মাসে অনিবন্ধিত অভিবাসীদের উপর একের পর এক বড় ধরনের অভিযান নীতিতে একেবারে বিপর্যয় চিহ্নিত করেছিল।

টেনাগানিটার নির্বাহী পরিচালক গ্লোরিন দাস বলছিলেন, সে সময় অনেক অনিবন্ধিত ব্যক্তি- বিশেষত শরণার্থী, আশ্রয় প্রার্থী এবং যারা তাদের আইনীকরণের বিষয়ে অভিবাসন বিভাগের প্রতিক্রিয়ার জন্য অপেক্ষা করছেন – তারা গত মার্চ মাসে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষা, ট্রেসিং এবং চিকিত্সা পরিচালনার জন্য এগিয়ে এসেছিলেন।

তবে মে মাসে যখন অভিযান শুরু হয় তখন তারা নিজেকে বাচাঁতে আত্মগোপনে চলে যায়। যদি এইরকম কঠোর পদক্ষেপ আবার শুরু হয়, তবে পুরো জনগণ মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়বে বলে এমনটি ধারনা করছেন টেনাগানিটার নির্বাহী পরিচালক গ্লোরিন দাস ।

তবে সরকার কর্তৃক বৈধ অবৈধ বিদেশিদের বিনা মূল্যে ঠিকাদানের ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে দাস বলেন, সকল বিদেশীদের প্রতি সমতা এবং অ-বৈষম্যের নীতিগুলি পরিহার করলেই অনিবন্ধিতরা ঠিকা দিতে এগিয়ে আসবে এবং সরকারের এ পরিকল্পনায় সফলতা আসবে বলে আশা করছেন তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews