1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫৭ অপরাহ্ন

কুমিল্লায় সৌদি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

আব্দুল হালিম নিহন, কুমিল্লা থেকে :
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১
Print Friendly, PDF & Email

 

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে আবদুল কাইয়ুম নামে এক সৌদি প্রবাসীকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। গুরুত্বর আহত হয়ে তিনি চৌদ্দগ্রাম থানার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

তাঁর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত ৯ জানুয়ারি রাতে এলাকার কয়েক জন যুবক আড্ডা দেওয়ার কথা বলে তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। বাড়ির অদূরে নির্জন জায়গায় বসে তারা সিগারেট ধরাতে ধরাতে কথা বলতে থাকেন। হঠাৎ সেখানে তাদের সঙ্গে আরো ১০-১২ জন যুবক যুক্ত হয়। এসময় তারা আবদুল কাইয়ুমকে ঘিরে ধরে মাদক গ্রহণের অভিযোগ করেন। নিজেদের পকেট থেকে মাদকের প্যাকেট বের করে তারা আবদুল কাইয়ুমের কাছে মাদক পেয়েছে বলে অভিযোগ করতে থাকে।

পরে জোরপূর্বক আবদুল কাইয়ুমকে পাশের একটি পুকুর পাড়ে নিয়ে গিয়ে চেপে ধরে তার গলাতে ধারালো ছুড়ি চালাতে থাকেন। আবদুল কাইয়ুম তখন সর্বশক্তি দিয়ে প্রাণপণে তাদেরকে ছিঁটকে ফেলে উঠে দৌঁড়াতে থাকেন।

পরে তারা কাইয়ুমকে পিছন থেকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করেন। আব্দুল কাইয়ুম কোন রকম  দৌঁড়ে বাড়ি পৌঁছালে পেছন পেছন দুর্বৃত্তরাও এসে তাঁর বাড়িতে হামলা করে। আবদুল কাইয়ুমের স্ত্রী, কন্যা সন্তানদের উপর চড়াও হয়ে তাদেরও মারধর করেছে বলে পরিবার থেকে অভিযোগ করা হয়।  এক পর্যায়ে কাইয়ুমের স্ত্রীর চিৎকারে এলাকাবাসী টের পেইয়ে গেলে তারা পালিয়ে যায়।

আবদুল কাইয়ুমের স্ত্রী জানান, তিনি ( কাইয়ুম ) বিদেশ থাকাকালীন সময়েও বিভিন্ন সময়ে  পরিবারকে উত্যক্ত করেছে এই বখাটে যুবকরা। এমনকি তার কন্যা সন্তানরা স্কুলে যাওয়ার পথে তারা ইভটিজিং করে। তাদের হাত থেকে রক্ষা পেতে কুমিল্লার আলকরা গ্রাম ছেড়ে ফেনী শহরে বাসা ভাড়া করে থাকেন তিনি। এসব বিষয় নিয়ে এলাকাতে বেশ কয়েকবার অভিযোগ করেছেন স্থানীয় চেয়ারম্যান এবং এলাকার মেম্বারের কাছে।

তারপরও শেষ রক্ষা হলো না কাইয়ুমের। বড় মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান করতে গ্রামে এসেছিলেন তিনি। পরে এই সন্ত্রাসী দল তার কাছে চাঁদা দাবি করে। বিয়ের অনুষ্ঠান শেষ হয় যথাসময়ে। কিন্তু চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানোর জন্য তার এই পরিণতি বলে দাবি আবদুল কাইয়ুমের।

আবদুল কাইয়ুম ২১ বছর ধরে সৌদি আরবের হাইল অঞ্চলে কর্মরত কাইয়ুম বলেন ২-৩ বছরে একবার ছুটি কাটাতে এসেও আমরা একটু নিরাপদে থাকতে পারিনা। ভয়ে আতংকে থাকতে হয় সব সময়, হামলার শিকার হতে হয়। আবার আমাদের অবর্তমানে পরিবারকে হেনস্থা হতে হয় ।

এদিকে এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হলেও  এখন পর্যন্ত গ্রেফতার হয়নি কেউ। এমনকি তারা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। প্রতিদিন হুমকি দিয়ে যাচ্ছে আবদুল কাইয়ুমের পরিবারকে ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews