1. monir212@gmail.com : admin :
  2. user@probashbarta.com : helal Khan Probashbarta : Helal Khan
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মীকে পুলিশের লাথি, নেট দুনিয়ায় ভাইরাল জাতীয় দিবসে বর্ণিল সাজে আমিরাত, নিষিদ্ধ গণজমায়েত কুয়েত প্রবাসীদের ‘সার্ভিস বেনিফিট’ পেতে দূতাবাসের নির্দেশনা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বিরোধীদের কঠোরভাবে দমনের দাবি স্পেন আওয়ামী লীগের কাতার প্রবাসীদের ফেরাতে রাষ্ট্রদূতের বৈঠক ছুটিতে এসে আটকেপড়া প্রবাসীদের সুখবর দিল জর্ডান মালয়েশিয়া প্রবাসীদের দ্রুত পাসপোর্ট প্রদানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে স্বারকলিপি মালয়েশিয়ায় বিদেশি শিক্ষার্থীদের খাদ্য সহায়তা প্রদান মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মীদের করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক কাতারে প্রবাসীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান দূতাবাসের

মালয়েশিয়ার রাজনীতির মাঠে চলছে ক্ষমতা দখলের লড়াই

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ক্ষমতাধর মুসলিম রাষ্ট্র মালয়েশিয়া। দেশটির রাজনীতির মাঠে উত্তাপে বইছে। এ উত্তাপে চলছে ক্ষমতা দখলের অব্যাহত লড়াই। আধুনিক মালয়েশিয়ার স্থপতি ডা: তুন মাহাথিরকে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছে,তারই হাতে গড়া নতুন রাজনৈতিকদল পেজুয়াং। আগামী সাধারণ নির্বাচন অবধি “দেশ বাঁচাতে”তৃতীয় বারের মত  প্রধানমন্ত্রী হিসাবে  মনোনীত করেছে।

মহাথির মুহিউদ্দিন ইয়াসিনকে প্রধানমন্ত্রীর স্থলাভিষিক্ত করতে প্রার্থী হিসাবে কাউকে বা কোনও বিশেষ ব্যক্তিকে সমর্থন দেওয়া অস্বীকার করার কয়েক দিন পরে এই সিদ্ধান্ত আসে।
মাহাথিরের রাজনৈতিক সম্পাদক আবু বকর ইয়াহিয়া একটি ফেসবুক পোস্টে বলেছেন, “দলের সদস্যরা সর্বসম্মতভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে দেশকে বাঁচাতে চাইলে আগামী সাধারণ নির্বাচনের আগ পর্যন্ত বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে প্রতিস্থাপন করার জন্য মাহাথির তাদের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী। যদিও এর আগে মাহাথির সাংবাদিকদের বলেছেন, আগামী সাধারন নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হবেননা।

এ দিকে প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ঘোষণা করেছেন বিরোধী দলীয় নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম। তিনি দাবি করেছেন পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপির সমর্থন আছে তার প্রতি। তাই তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নতুন সরকার গঠন করতে চান। এ কথা জানাতে সম্প্রতি সাক্ষাত করেন রাজা সুলতান আবদুল্লাহ সুলতান আহমেদ শাহ’র সঙ্গে। তার কাছে দাবির পক্ষে তথ্যপ্রমাণ উপস্থাপন করেন আনোয়ার ইব্রাহিম। এরপর ডেমোক্রেটিক একশন পার্টি (ডিএপি) ও আমানাহ’র নেতারা একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তাতে বলা হয়, রাজার সঙ্গে সাক্ষাত করতে আলাদাভাবে তাদেরকে তলব করা হয়েছে।

এই দুটি দলই আনোয়ার ইব্রাহিমের মিত্র। তবে সর্বশেষ খবর হলো, আনোয়ার ইব্রাহিমের এসব মিত্রের সঙ্গে সাক্ষাত স্থগিত করেছে রাজপ্রাসাদ। বিরোধী দলীয় নেতারা ১৪ অক্টোবর বুধবার এ তথ্য দিয়েছেন। ডিএপির সেক্রেটারি জেনারেল লিম গুয়ান ইং এবং আমানা’র প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সাবু স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ১৩ অক্টোবর দিবাগত রাতে মহামান্য রাজার সিনিয়র প্রাইভেট সেক্রেটারি জানিয়েছেন, উভয় দলের সঙ্গে তার আলাদা আলাদা বৈঠক স্থগিত করা হয়েছে। তবে নতুন কোনো তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে এই দু’নেতা কিছু বলেননি। উল্লেখ্য, গত মার্চে প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদের দলের সদস্য মুহিদ্দিন ইয়াসিন দলের ভিতরে গোপনে নিজের পক্ষে সদস্যদের টানতে থাকেন। বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি ঘোষণা দেন, তারই রয়েছে সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপির সমর্থন। ওদিকে এমন প্রেক্ষাপটে পদত্যাগে বাধ্য হন মাহাথির মোহাম্মদ। সত্যি সত্যি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিয়ে মার্চে প্রধানমন্ত্রী হন মুহিদ্দিন ইয়াসিন। কিন্তু তারপর পার্লামেন্ট অধিবেশন বন্ধ হয়ে যায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে। একদিন শুধু রাজার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে সামান্য সময়ের জন্য পার্লামেন্ট অধিবেশন আহ্বান করে সরকার। এদিন কৌশলে বিরোধীদের নোটিশ এড়িয়ে যায় তারা। তারপর প্রায় ৮ মাস কেটে গেছে। এখন নতুন করে ক্ষমতার রশি ধরে টান দিয়েছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। তিনি ১২ অক্টেবর সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, পার্লামেন্টে যে ২২২ টি আসন আছে তার মধ্যে ১২০ জনেরও বেশি এমপি তাকে সমর্থন করেন। ফলে তিনি নতুন সরকার গঠন করতে চান। এরও আগে তিনি এমন ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবে সে সময় কি পরিমাণ এমপি তাকে সমর্থন করেন তার সুনির্দিষ্ট সংখ্যা উল্লেখ করেননি। সোমবারের ওই তথ্য নিয়ে তিনি মঙ্গলবার রাজার সঙ্গে সাক্ষাত করেন। এরপর রাজপ্রাসাদ থেকে বিবৃতিতে জানানো হয়, আনোয়ার ইব্রাহিম তাকে সমর্থনকারী এমপিদের সংখ্যা জানিয়েছেন। তবে তার এসব সমর্থকদের পরিচয় প্রকাশ করেননি।

বর্তমান পার্লামেন্টে ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রীর মাত্র দুটি আসনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা আছে। ফলে যেকোনো সময় তা হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, মালয়েশিয়ায় রাজা শুধু বড় বড় আনুষ্ঠানিক ভূমিকা পালন করেন। তবে কোনো পার্লামেন্ট সদস্য বা দলনেতাকে যদি সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপি সমর্থন করেন, তাহলে তাকে তিনি প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ করতে পারেন। মালয়েশিয়ায় নতুন সরকার সাধারণত নির্বাচনে নির্বাচিত হয়। কিন্তু বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন রাজা।

উল্লেখ্য, চলতি বছর মার্চে মালয়েশিয়ার রাজনীতি ও সরকারে এক টালমাটাল অবস্থা বিরাজ করছিল। ওই সময়ে তখনকার ক্ষমতাসীন পাকাতান হারাপান জোটের কিছু বিপথগামী সদস্য ২০১৮ সালের নির্বাচনে পরাজিতদের সঙ্গে গোপনে আঁতাত করে। তার সঙ্গে ছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনও। তাদের ষড়যন্ত্রে ক্ষমতা হারাতে হয় ৯৫ বছর বয়সী তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদকে। এরপরই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আবির্ভূত হন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews