1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:২১ অপরাহ্ন

অবৈধ পথে বিদেশ যাত্রা ঠেকাতে পরিবারের সচেতনতা জরুরি

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশিত : বুধবার, ৩ জুন, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

অবৈধ পথে বিদেশ যাত্রা ঠেকাতে শুধু আইন দিয়ে চলবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ। তিনি বলেন, আইনের পাশাপাশি জরুরি মানুষের সচেতনতা। যারা জেনেবুঝে ঝুঁকি নিয়ে অবৈধ পথে বিদেশ যাত্রা করছে তাদের আগে সচেতন হতে হবে। মন্ত্রী বলেন, ঝুঁকি জেনেও এই পথে পা বাড়ালে তখন আইন দিয়ে তেমন কিছু করার থাকে না, কারণ ক্ষতি যা হওয়ার হয়েই যায়।

মঙ্গলবার ( ২ জুন ) প্রবাস খাতের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী প্লাটফর্ম  প্রবাস তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোগে সাংবাদিক মিরাজ হোসেন গাজীর ফেসবুক লাইভে এসব কথা বলেন ইমরান আহমদ। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, ” আমরা মাঝে মধ্যেই দেখছি ভূমধ্যসাগরে বাংলাদেশি তরুণদের লাশ ভাসছে। জঙ্গলে গণকবর। শত শত সম্ভাবনাময় তরুণ-যুবক লাশ হচ্ছে প্রতারণা ও প্রলোভনে। এটা বন্ধ করতে হবে। আইনের কাজ আইন করছে কিন্তু ঝুঁকি নিয়ে বিদেশ যাত্রা বন্ধ করতে সচেতন হতে হবে সাধারণ মানুষকে। কারণ লাশ তো হচ্ছেন তারাই। দালালরা তো টাকা কামিয়েই যাচ্ছে। ক্ষতি হচ্ছে আমাদের সাধারণ পরিবারগুলোর। তাই পরিবারগুলোর সচেতনতা জরুরি। ”

ইমরান আহমদ বলেন, লিবিয়ার ঘটনা জানার পর থেকেই র‍্যাবকে সকল তথ্য দিয়ে সহায়তা করছে মন্ত্রণালয়। তিনি বলেন র‍্যাব এরই মধ্যে বেশ কয়েক জনকে আটক করেছে। মানবপাচারের সাথে জড়িত সকল অপরাধী শিগগিরই আটক হবে বলেও আশা করেন তিনি। তিনি বলেন, পরিস্থিতি স্বভাবিক হলে সকল মন্ত্রণালয় নিয়ে আরও কাজ করা হবে।

অভিবাসন খাতের সিনিয়র সাংবাদিক ও প্রবাস তথ্যসেবা কেন্দ্রের উপদেষ্টা কেরামত উল্লাহ বিপ্লব বলেন, অবৈধ পথে বিদেশ যাত্রার জন্য শুধু দালাল বা পাচারকারীদের দায়ি করলে হবে না। যে সকল পরিবার থেকে তরুণরা মৃত্যুর মুখে রওনা দেয় সেই পরিবার কম দায়ি না। তিনি বলেন, সকলেই জানে ইউরোপে বৈধভাবে যাওয়া যায়না। তারপরও যারা ঝুঁকি নিচ্ছে তাদেরও দায় নিতে হবে।

সাংবাদিক বিপ্লব বলেন, অবৈধ পথে বিদেশ যাত্রা ঠেকাতে সচেতনতা বাড়াতে হবে। এজন্য প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়কে ব্যাপক প্রচারণা চালাতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বিপ্লব বলেন, যারা এই মৃত্যু পথে যাত্রা করেন তাদের ৯৯ ভাগই মৃত্যু বা নির্যাতনের শিকার হয়। ইউরোপে মানবপাচার বন্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, সংশ্লিষ্ট দেশ, আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে সম্পৃক্ত করে এখনই আলোচনা করতে হবে। এ জন্য বাংলাদেশকেই উদ্যোগ নেয়ার কথা বলেন তিনি।

অভিবাসন নিয়ে কাজ করা সংগঠক হারুন আল রশিদ বলেন, রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশ শ্রম অভিবাসন নিয়ে কী চায় তা এখনো নির্ধারণ করা হয়নি। কত দিন বাংলাদেশ বিদেশে শ্রমিক পাঠাবে তা নির্ধারণ করা জরুরি। তিনি বলেন, সকল মন্ত্রণালয় একসাথে কাজ না করলে এই লাশের মিছিল থামবে না। বিভিন্ন সময় নানা অনিয়ম হলেও বিচার হয়নি বলেই বারবার একই অপরাধ ঘটছে।

 

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews