1. monir212@gmail.com : admin :
  2. user@probashbarta.com : helal Khan Probashbarta : Helal Khan
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

কাতারে প্রবাসীদের অসুস্থতার তথ্য পেয়েই ছুটে যান শ্রম কাউন্সেলর

প্রবাস বার্তা, কাতার
  • প্রকাশিত : সোমবার, ১৮ মে, ২০২০
অসুস্থ প্রবাসীর পাশে শ্রম কাউন্সেলর
Print Friendly, PDF & Email

 

কাতারে প্রবাসীদের অসুস্থতার কথা জেনেই ছুটে গেছেন শ্রম কাউন্সেলর মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান । করোনাভাইরাসের প্রভাবে সবকিছু বন্ধ থাকায় অনেক প্রবাসী অসুস্থ হয়ে পড়লেও হাসপাতালে যেতে পারছিলেন না। কেউ কেউ বাসা বা ক্যাম্পেই কাতরাচ্ছিলেন। এমন বেশ কয়েকজন প্রবাসী কর্মীর পাশে দাঁড়িয়ে প্রবাসীদের কাছে বেশ আলোচনায় কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সেলর মোস্তাফিজুর রহমান।

শুক্রবার ( ১৫ মে ) কাতারের রাজধানী দোহা থেকে বেশ খানিকটা দূরে একটি ক্যাম্পে দুর্ঘটনার শিকার প্রবাসী কর্মী হৃদয়কে দেখতে যান শ্রম কাউন্সেলর মোস্তাফিজুর রহমান। দূতাবাসের কোন কর্মকর্তাকে এই ক্যাম্পে দেখে হতবাক সাধারণ কর্মীরা। প্রবাসী কর্মী হৃদয় কোম্পানীতে কাজ করার সময় তার হাত ভেঙে যায়। খবর পেয়ে সেখানে যান শ্রম কাউন্সেলর।

প্রবাসী কর্মী হৃদয় প্রবাস বার্তাকে জানান, “দূতাবাসের স্যার ( শ্রম কাউন্সেলর ) এসে আমার খোঁজ খবর নিয়েছেন। কিছু নগদ টাকাও দেন আমাকে। আমি যেনো ক্ষতিপূরণ দ্রুত পাই সেজন্য আশ্বাস দিয়েছেন।”

কাতার প্রবাসী হৃদয় জানান, দূতাবাসের সহায়তায় ফরিদপুরের সালতা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে বাড়িতে খাবার সহায়তাও পাঠানো হয়।

আহত প্রবাসীর ক্যাম্পে শ্রম কাউন্সেলর

আরেক প্রবাসী কর্মী আক্তার হোসেন। সানাইয়া ৪৭ এলাকায় থাকেন তিনি। চার পাঁচ দিন জ্বর ছিল। কোম্পানীর হাসপাতালে যখন তিনি যান, তখন শরীরে জ্বর না পাওয়ায় ভর্তি নেয়নি। কিন্তু বাসায় এসে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন। দূতাবাসের  অন্য একজনের মাধ্যমে এই তথ্য জানার পর শ্রম কাউন্সেলর মোস্তাফিজুর রহমান আক্তার হোসেনকে নাসিম আল-রাবি হাসপাতালে বাংলাদেশি চিকিৎসক ডা. মাহফুজুর রহমানের কাছে যেতে বলেন। প্রবাসীকে হাসপাতালে যাওয়ার কথা বলেন তিনি ছুটে যান হাসপাতালে।

প্রবাসী আক্তার জানান, ” বৃহস্পতিবার ( ১৪ মে ) দূতাবাস থেকে আমাকে হাসপাতালে ডাক্তার দেখানোর ব্যবস্থা করে। পরে স্যার ( শ্রম কাউন্সেলর ) নিজেও ফল ও খাবার নিয়ে আমাকে দেখতে আসেন। ”

অসুস্থ প্রবাসীর পাশে শ্রম কাউন্সেলর

মোহাম্মদ হানিফ। কোয়ারেন্টিনে ছিল। শরীরে অনেক ব্যাথা থাকায় ভয় পাচ্ছিলেন এই কর্মী। শ্রম কাইন্সেলরকে জানানোর পর গভীর রাতে এম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে হাসপাতালে নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। হাসপাতাল থেকে তাকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। এখন তিনি ভালো বলে জানা যায়।

করোনাভাইরাসের এই ঝুঁকিপূর্ণ সময়ে অসুস্থ প্রবাসীদের দেখতে ছুটে বেড়ানোর বিষয়ে শ্রম কাউন্সেলর মোস্তাফিজুর রহমান প্রবাস বার্তাকে জানান, ” প্রধানমন্ত্রী প্রবাসীদের জন্য এতো উদ্যোগ নিচ্ছেন, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ও সচিব নিয়মিত বিষয়গুলো তদারকি করছেন। সবকিছুই তো প্রবাসীদের কল্যাণে। আমাদেরকে দূতাবাসে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে প্রবাসীদের সেবা করার জন্য। আর অসুস্থ অবস্থায় একজন মানুষ সবচেয়ে বেশি অসহায় থাকেন। তাই এ অসহায় সময়ে তাদের জন্য একুটু তো আমাদের করতেই হবে।”

তিনি বলেন, “প্রবাসীদের কোন সমস্যা থাকলে দূতাবাসে জানাবেন। আমাদের কাছে কোন তথ্য আসলে আমরা সেটার সমাধান করবো। কিন্তু অনেকেই দূতাবাসে আসতে চান না। প্রবাসীদের জন্য দূতাবাসের সেবা সব সময় উন্মুক্ত।”

 

 

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews