1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

মালয়েশিয়ায় কমছে আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ছে লকডাউন

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া: করোনা নিয়ন্ত্রণে টালমাটাল সব দেশ। আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় হিমশিম খাচ্ছে গোটাবিশ্ব। প্রতিনিয়তই বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। তবে এ ভাইরাস মোকাবিলায় বিশ্বকে চমকে দিয়েছে এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়া। কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা ১০ এর নিচে নেমে না আসা পর্যন্ত লকডাউন শিথিল করার সিদ্ধান্ত  নিবে না মালয়েশিয়া। ফের ১২ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে মুভমেন্ট কন্ট্রোল ওয়ার্ডার। যদিও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের মধ্যেই কমতে শুরু করেছে আক্রান্তের সংখ্যা।

সংকটকালে করোনা নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের তিনজন ডাক্তারের মধ্যে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক ডা. নূর হিশাম আব্দুল্লাহ রয়েছেন ৩য় স্থানে। প্রতিদিন মিডিয়ার সামনে সচেতনামূলক উপদেশ দিয়ে ও কোভিড নিয়ন্ত্রণে রাখায় “জাতীয় হিরো” হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছেন তিনি।

ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে নতুন মাত্রা যোগ করেছেন এই চিকিৎসক। সেইসঙ্গে মৃত্যুর হারও আগের মতো আর নেই মালয়েশিয়ায়। দেশটিতে আতঙ্কের বদলে ফিরতে শুরু করেছে স্বস্তি। যেখানে প্রতিদিন দুই শ’র বেশি আক্রান্ত হতো সেখানে বর্তমানে আক্রান্ত কমে গেছে অনেকটাই। আইসিইউতে চিকিৎসাধীনদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হারে রোগিরা সুস্থ হয়ে উঠছে প্রতিনিয়ত। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৯৪৫জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪ হাজার ৮৭ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ১০০ জন।

চলাচলে নিয়ন্ত্রণ ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষিত বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে শুরু করেছেন নাগরিকরা। এছাড়া শর্তসাপেক্ষে চালু করা হয়েছে বিভিন্ন কলকারখানা। পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলেই খুলে যাবে সব প্রতিষ্ঠান। ইতিমধ্যেই সরকারের পাশাপাশি দেশটির বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তি উদ্যোগে নাগরিকদের খাদ্য সহায়তা দিয়ে আসছে।

প্রবাসীদের খাদ্য সহায়তা দিচ্ছেন বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতারা

এছাড়া দেশটিতে অবস্থান করা বাংলাদেশিদের খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ হাইকমিশন ও বাংলাদেশি জনহিতৈশীরা। তবে দূতাবাসের পক্ষ থেকে যে খাদ্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে তা একেবারেই অপ্রতুল। চাহিদার তুলনায় অধিকাংশ প্রবাসী খাবার সহায়তা পায়নি। কেউ কেউ আবেদন করে সহায়তা পাচ্ছেন না, এমনটি বলছেন অনেকে। দূতাবাস এ পর্যন্ত প্রায় ৪ হাজারেরও অধিক বাংলাদেশি নাগরিকদের খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে হাইকমিশন। একই ভাবে অন্যদের নিকট পর্যায়ক্রমে খাদ্য সহায়তা পৌছেঁ দেওয়া হবে বলে জানালেন দূতাবাসের সংশ্লিষ্টরা।

রাজধানী শহর ছাড়া, মালাক্কা, জহুরবারু, পেনাং, তেরেঙ্গানু, কোয়ান্তান, ক্যামেরুন হাইল্যান্ডের পাহাড় জঙ্গলে অনেক প্রবাসি কাজ করছে তাদের খোজঁ কে রাখে? আবার অনেকে আছেন নাম দস্তখত জানে না। ফোন করতে হলে অন্য জনের সহায়তা নিতে হয় দেশে টাকা পাঠাতেও সহযোগিতা নিতে হয় অন্য জনের। তাদের সংখ্যাও কম নয়। তারা না খেয়ে কোথায় কোথায় পড়ে রয়েছে তাদের খোজেঁ বেরকরে সহায়তার অনুরুধ জানিয়েছেন সচেতন প্রবাসীরা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews