1. monir212@gmail.com : admin :
  2. user@probashbarta.com : helal Khan Probashbarta : Helal Khan
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন

মেয়ের ওষুধের টাকা মালয়েশিয়ার সেই প্রবাসীকে দিলেন সাংবাদিক কবির

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা : মালয়েশিয়ার জহুরবারু এলাকায় শ্রীআলমে থাকেন প্রবাসী কর্মী মো: রহিম। করোনাভাইরাসের প্রভাবে কাজহীন বেকার তিনি। ৬ এপ্রিল হাইকমিশনে খাদ্য সহায়তা চান রহিম। টেলিফোনে আশ্বাসও পান। তবে ১৬ দিনেও কেউ তাকে সহায়তা করেননি।

প্রবাস বার্তা’য় এ নিয়ে একাধিক সংবাদও প্রকাশ করা হয়। ঢাকা থেকে সিনিয়র সাংবাদিকরা বিষয়টি মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের শ্রম উইংয়েও জানান। এমনকি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজাও বিষয়টি অবহিত করেন হাইকমিশনে। তারপরও সহায়তা পৌঁছায়নি প্রবাসী রহিমের কাছে। শুধু আশ্বাসই মিলতে থাকে।

অবশেষে খাদ্য সংকটে থাকা এই রেমিট্যান্স যোদ্ধার পাশে দাঁড়ালেন মালয়েশিয়া প্রবাসী সাংবাদিক শেখ আহমাদুল কবির। দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টিভির প্রতিনিধি এবং প্রবাস বার্তার বিশেষ প্রতিনিধি শেখ কবির নিজের মেয়ের ওষুধের টাকা প্রবাসী রহিমকে দিলেন খাবার কেনার জন্য। মেয়ের ওষুধ কেনার জন্য যেই টাকাটা পকেটে ছিল, সেটাই রহিমকে পাঠালেন তিনি।

প্রবাসী রহিমের কষ্টের গল্প এখানেই শেষ নয়। মালয়েশিয়ায় ২০১৮ থেকে চলা রি-হায়ারিং-এ বৈধতার জন্য ৫ হাজার রিংগিত দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ভিসা পাননি এখনো। ফলে অবৈধ হয়ে এক প্রকার পালিয়ে কাজ করছিলেন। কিন্তু লকডাউন শুরু হওয়ায় সেই কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে বেতন নেই। যেই এলাকায় থাকেন রহিম, সেখানে পরিচিত কোন বাংলাদেশি নেই। মালয়েশিয়ার এক নাগরিকের কাছ থেকে ৭০ রিংগিত ধার করে এতোদিন চলেছেন। এই টাকায় কোনমতে খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছিলেন রহিম।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ( TodayBanglaHD ) এক মন্তব্যের মাধ্যমে রহিমের সমস্যার কথা জানতে পারেন বাংলাভিশনের সিনিয়র সাংবাদিক মিরাজ হোসেন গাজী। ঢাকা থেকে তিনিই প্রথম রহিমকে মালয়েশিয়ায় সহায়তার জন্য ফেসবুকে পোস্ট দেন। এরপর সংবাদ মাধ্যমে শিরোনাম হন রহিম। শেষ পর্যন্ত সাংবাদিক শেখ আহমাদুল কবির, রহিমকে (তার প্রতিবেশি এক মালয়েশিয়ান নাগরিকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে) ১০০ রিংগিত পাঠালেন।

যখন হাইকমিশনসহ কেউই এগিয়ে আসেনি, তখন অসহায় এক প্রবাসীকে নিজের মেয়ের জন্য রাখা ওষুধের টাকা দিয়ে, মানবতার অনন্য এক দৃষ্টান্ত রাখলেন মালয়েশিয়া প্রবাসী সাংবাদিক শেখ আহমাদুল কবির। খাদ্য কষ্টে থাকা এই কঠিন সময়ে সহায়তা পেয়ে আপ্লুত হন প্রবাসী মো: রহিম। তিনি প্রবাস বার্তাকে বলেন, “এই টাকা পেয়ে অনেক দিন চলতে পারবেন। এতোদিন পর হলেও সহায়তা পেয়ে কৃতজ্ঞতা জানান মো. রহিম।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews