1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

করোনায় ঝুঁকিতে প্রবাসী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

আব্দুল হালিম নিহন, সৌদি আরব: বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রতিটা দেশ  নিচ্ছে লকডাউনসহ নানা পদক্ষেপ। যার ফলে দিন দিন বাড়ছে প্রবাসীদের বেকারত্বের সংখ্যা। অসহায় হয়ে পড়ছেন অনেকেই। আর সে অবস্থায় অসহায় প্রবাসীদের জন্য ইতিহাসের প্রথম কোনো প্রণোদনা ঘোষিত হলো বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে। যেমন এ ধরনের প্রণোদনা এসেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবেও। যদিও এরই মধ্যে সৌদি আরবের রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাস এবং জেদ্দা কনস্যুলেট বাংলাদেশ থেকে আসা প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা থেকে খাদ্যসামগ্রী দেয়া শুরু হয়েছে, কিন্তু এই দেশে বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান যা রিয়াদ দূতাবাসের পরিচালনায় চলছে সে প্রতিষ্ঠানগুলোর কী হবে এমনটি প্রশ্ন এখন অনেকের।

যার মধ্যে অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সৌদি আরবে রিয়াদ , জেদ্দা, দাম্মাম , আল গাছিম সহ অনেক প্রদেশে রয়েছে বাংলাদেশী সন্তানদের প্রবাসের মাটিতে সুশিক্ষিত গড়ে তোলার জন্য এই প্রতিষ্ঠান গুলো । যার মধ্যে উল্লেখযোগ্যে রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসের পরিচালনায় দুইটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান- বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ বাংলা শাখা ও বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ ইংরেজি শাখা (রিয়াদ) ।

এই দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং অন্যান্য কর্মকর্তাসহ কর্মরত রয়েছেন প্রায় ১৬০ জন।

বর্তমান সৌদি আরবে করোনাভাইরাস রোধে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বন্ধ রাখা হয়েছে সৌদি আরবের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। যার ফলে সৌদি আরবে থাকা বাংলাদেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোও বন্ধ রয়েছে। এতে বেকার হয়ে পড়েছেন এসব প্রতিষ্ঠানে থাকা শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী। যার মধ্যে বড় একটি সংখ্যা রিয়াদে ।

অন্যদিকে বন্ধের এই সময়ে শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইন ক্লাস চালু করা হলেও সেটি চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদকে। কারণ বর্তমান সৌদি আরবের পরিস্থিতিতে বেকার হয়েছেন অনেক পরিবারের কর্তারা। ফলে তারা সময়মতো স্কুলের ফি পরিশোধ করতে পারছেন না।

এই অবস্থায় এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দিকে বাংলাদেশ সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন প্রবাসী পরিবার এবং অভিভাবকরা। অভিবাকরা মনে করছেন, সরকার যদি প্রবাসীদের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্যও কিছু প্রণোদনার ব্যবস্থা করেন, তাহলে এই দুঃসময়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারবেন এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews