1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

ঢাকায় আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের ৮ সদস্য গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : সোমবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২০
Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা: রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের ৮ সদস্যকে গ্রেফতার সহ মধ্যপ্রাচ্যে পাচার হতে যাওয়া দুই তরুণীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

রবিবার (২৬ জানুয়ারি) রাতে র‌্যাব-১১ এর বিশেষ অভিযানে কামরাঙ্গীরচর, কেরানীগঞ্জ ও মুগদা থেকে এই আটজনকে গ্রেফতার করা হয়। একই সাথে জব্দ করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ পাসপোর্ট ও বিমানের টিকেট।

অভিযানে গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রাজধানীর কাকরাইল এলাকার ধানসিঁড়ি ট্রাভেল এজেন্সির মালিক মোঃ শাহাবুদ্দিন (৩৭), তরুণী সংগ্রহকারী এজেন্ট মোঃ হৃদয় আহম্মেদ ওরফে কুদ্দুস (৩৫), মামুন (২৪), মোঃ স্বপন হোসেন (২০), মোঃ শিপন (২২), রিজভী হোসেন ওরফে অপু (২৭), মুসা ওরফে জীবন (২৮) ও শিল্পী আক্তার (২৭)।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৩৯ পাসপোর্ট, ৬৬ পাসপোর্টের ফটোকপি, ১৮ বিমান টিকেটের ফটোকপি, ৩৬ ভিসার ফটোকপি, একটি সিপিইউ ও ১৯টি মোবাইল জব্দ করা হয়।

এদিকে র‌্যাব-১১ এর মিডিয়া অফিসার (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) মোঃ আলেপ উদ্দিন সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ‘জিজ্ঞাসাবাদে ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেফতাররা একটি সংঘবদ্ধ আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য এবং তারা ১৫ থেকে ২৫ বছর বয়সী সুন্দরী তরুণীদের মধ্যপ্রাচ্যে উচ্চ বেতনে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ড্যান্স বারে অসামাজিক কার্যকলাপের উদ্দেশে পাচার করে।’

তিনি আরো জানান, সিন্ডিকেটের সদস্যরা পাচার করা নারীদের হোটেলে নিয়ে গৃহবন্দী করে রাখত। বিদেশে অবস্থানকালীন ওসব তরুণীকে কোন অবস্থাতেই নিজের ইচ্ছায় হোটেল ও বারের বাইরে যেতে দেয়া হতো না।

র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রাথমিক অবস্থায় তরুণীরা এসব আসামাজিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে রাজি না হলে বিভিন্ন নেশাজাতীয় দ্রব্য জোরপূর্বক প্রয়োগ করা হতো।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার ধানসিঁড়ি ট্রাভেল এজেন্সির মালিক শাহাবুদ্দিন জানান, তিনি তার বিভিন্ন এজেন্টের মাধ্যমে ১৫ হতে ২৫ বছর বয়সী সুন্দরী নারীদের সংগ্রহ করে আসছিলেন। নারীদের বিদেশে উচ্চ বেতনে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে মধ্যপাচ্যে অবস্থিত বিভিন্ন ড্যান্স বারে পাচার করতেন। তার সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের ড্যান্স বারের মালিকদের সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে অন্যরা নারী সংগ্রহের এজেন্ট হিসেবে কাজ করতেন। চক্রটি গেল ২ বছরে সহস্রাধিক তরুণীকে মধ্যপ্রাচ্যে পাচার করেছে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews