Print Friendly, PDF & Email

 

বিশেষ প্রতিনিধি : তিন দিনের সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাত গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর এই সফরে সাথে আছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

রবিবার ( ১২ জানুয়ারি ) আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে  ‘আবুধাবি সাসটেইনেবল উইক’, ‘জায়েদ সাসটেইনেবল অ্যাওয়ার্ড সিরিমনি’ ছাড়াও এই সফরে ঐ অন্চলের বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে আয়োজিত ‘দূত সম্মেলনেও’ অংশ নিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

সফর বিষয়ে শনিবার রাতে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রী ইমরান আহমদ প্রবাস বার্তাকে বলেন, “ এটি প্রধানমন্ত্রীর সফর। আমি ওনার সফরসঙ্গী হিসেবে যাচ্ছি । তিনটি শিডিউল অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।”

শ্রমবাজার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত হবে কিনা- এমন প্রশ্নে ইমরান আহমদ বলেন, “ এধরনের সফরে এজেন্ডার বাইরে কোন বিষয়ের চুড়ান্ত কিছু হয় না। তবে নির্ধারিত অনুষ্ঠানের মধ্যে শ্রমবাজার নিয়ে কথা তো হবেই। যেহেতু এটা ( শ্রমবাজার ) এটার বড় ইসু আমাদের জন্য। আমিরাতের কর্তাদের সাথে কথা হওয়ার সুযোগ হবে, তাই  শ্রমবাজার চালুর বিষয়ে আলেচনা হতে পারে।”

ইমরান আহমদ বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর এর আগের সফরে ( ১৭ নভেম্বর ) দেশটির আবুধাবির যুবরাত শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল-নাহিয়ান আশ্বাস দিয়েছিলেন বাজার চালুর বিষয়ে। এবার তাঁর ( আল-নাহিয়ান) সাথে কথা হলে শ্রমবাজার বিষয়ে কথা বলা হবে।”

মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, “এ ধরণের সফরে কোন চুক্তি হয় না তবে ক্ষেত্র তৈরি হলে বা আলোচনায় অগ্রগতি হলে এক সপ্তাহ পরে প্রয়োজনে আবারো যাবো।”

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের পর থেকেই বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য বন্ধ সংযুক্ত আরব আমিরাতের শ্রমবাজার । সেই সাথে বন্ধ রয়েছে দেশটিতে ভিসা পরিবর্তেন সুযোগও । যদিও এই সময়ে অন্য সকল দেশের জন্য ভিসা চালু রয়েছে আমিরাতে।

bdnewspaper24