Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা, লেবানন: লেবাননে মিনু বেগম নামে এক বাংলাদেশি নারীকর্মী খুন হয়েছে। ঢাকা জেলার আশুলিয়া এলাকায়

শনিবার (৩০ নভেম্বর) স্থানীয় সময় রাত ৮টায় দেশটির রাজধানী বৈরুতের আসরাফিয়ে এলাকার একটি বাসা থেকে মিনু বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় তার একটি হাত ও একটি পা বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ছিল।

এ বিষয়ে লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিরা জানান, জামশেদ মিয়া ওরফে ফারুক নামের এক বাংলাদেশির সঙ্গে মিনু বেগম একসাথে বসবাস করতেন। প্রায় তিন মাস আগে অন্যত্র থেকে এসে আসরাফিয়ে এলাকায় বাসাভাড়া করে থাকতেন তারা।

গেল তিনদিন যাবত তাদের বাসায় তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পেয়ে পাশে থাকা বাংলাদেশিদের সন্দেহ হয় এবং দুর্গন্ধ পেয়ে বাসার মালিককে জানানো হয়। পরে বাসার মালিক ২/৪ বাংলাদেশি সঙ্গে নিয়ে তালা ভেঙ্গে বিছানার নিচে দেখতে পায় পলিথিন মোড়ানো মরদেহ।

এরপরে স্থানীয় পুলিশকে খবর দিলে ময়না তদন্তের জন্য মিনু বেগমের মরদেহ তাদের হেফাজতে নিয়ে যায়। সে সময় বাসায় এবং আশেপাশের এলাকা খুঁজেও মিনু বেগমের বিচ্ছিন্ন হাত পা পাননি পুলিশ। ঘতক হাত-পা কেটে নিয়ে গেছে এমনটাই ধারনা হচ্ছে।

বর্তমানে মিনু বেগমের সঙ্গী ফারুক পলাতক রয়েছেন। ফারুকের বাড়ী কুমিল্লা জেলার সরুজনগর গ্রামে। তার খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

এমন হত্যাকান্ডে আসরাফিয়ে এলাকাসহ পুরো লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ এ হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে জরিত ব্যাক্তিকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত শাস্তির দাবি জানান।

bdnewspaper24