Print Friendly, PDF & Email

 

ওয়ালীউল হাসানাত: সৌদি আরবে নারী কর্মীর সুরক্ষায় ভিসার আগেই নিয়োগদাতার সকল তথ্যসহ বাংলাদেশ দূতাবাসের অনুমোদন নিতে হবে। এছাড়াও কোন নারী কর্মীকে বাসা বা নিয়োগদাতা পরিবর্তন করা হলে সেই তথ্যও দূতাবাসে দিতে হবে।

সোমবার ( ২ ডিসেম্বর ) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সচিব মো. সেলিম রেজা। ২৭ নভেম্বর সৌদি আরবে দুই দেশের কারিগরি কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানাতে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সচিব জানান, এখন থেকে সৌদীতে নারী গৃহকর্মীরা যতদিন কর্মরত থাকবেন ততদিন তার দায়িত্ব বাংলাদেশ ও রিক্রুটিং এজেন্সি বহন করবে। একই সাথে যে সকল নারী কর্মী প্রত্যাবর্তনের অপেক্ষায় রয়েছে তারা প্রত্যাবর্তন না করা পর্যন্ত তাদের আবাসন ও উন্নয়নের দায়িত্ব রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোকেই বহন করতে হবে।

এসময় সচিব আরো জানান, সৌদিতে যৌথ কারিগরী কমিটির বৈঠকে নারী কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য  MUSANED নামে আইটি প্লাটফর্মে সংশ্লিষ্ট সকল তথ্য সংগ্রহের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

যেখানে কর্মীদের বিস্তারিত ঠিকানা, সৌদি ও বাংলাদেশ রিক্রুটিং এজেন্সি এবং নিয়োগকর্তার পূর্ণ যোগাযোগের ঠিকানা, নারী কর্মীর নিয়োগকর্তার পরিবর্তন সংক্রান্ত তথ্যাবলী, নারী কর্মীর আগমনের তারিখ এবং নিয়োগকর্তার কাছে হস্তান্তরের তারিখ, প্রত্যাবর্তনকারী গৃহকর্মীর এক্সিট সংক্রান্তসহ সকল সংশ্লিষ্ট তথ্য সন্নিবেশিত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এই প্লাটফর্মে নতুন এবং পুরাতন সকল কর্মীদের সংশ্লিষ্ট সকল তথ্যাবলী সংগ্রহ থাকবে। যদি কখনো কোনো কর্মী সম্পর্কে কোন তথ্য প্রয়োজন হয় তাহলে আমরা ঢাকা থেকেই সে কর্মীর বর্তমান অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারবো এর মাধ্যমে।

এসময় সচিব আরো জানান, কোন বিপদগ্রস্ত নারীকর্মীর সুরক্ষার বিষয়ে গুরুতর অভিযোগ উঠে আসলে এখন থেকে সৌদির ”ডিপার্টমেন্ট অফ প্রটেকশন এন্ড সাপোর্ট” সংস্থাটি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে সেই সাথে সংশ্লিষ্ট শ্রম কল্যাণ উইং বিষয়টি কর্তৃপক্ষের নজরে নিয়ে আসবেন।

এদিকে যৌথ কারিগরী কমিটির বৈঠকে দেশে ফিরে আসা পুরুষ কর্মীদের সম্পর্কে কোনো পদক্ষেপ নেয়া বা আলোচনা হয়েছে কিনা সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হলে সচিব জানান, যারা ফিরে এসেছেন হয়তোবা তাদের অনেকেরই আকামা রয়েছে কিন্তু কর্মক্ষেত্র পরিবর্তন করার কারণে সৌদি আইন অনুযায়ী তারা অবৈধ হয়ে যাচ্ছে। যার কারণে তাদেরকে দেশে ফেরত পাঠিয়ে দিচ্ছে সৌদি সরকার।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো: যাহিদ হোসেন, মো: ফজলুল করিম ও মো: সারোয়ার আলম, অতিরিক্ত সচিব আহমেদ মনিরুছ সালেহীন, সাবিহা পারভীন, উপসচিব মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম এবং কাজী আবেদ হোসেন প্রমুখ।

bdnewspaper24