1. monir212@gmail.com : admin :
  2. user@probashbarta.com : helal Khan Probashbarta : Helal Khan
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৩:১০ পূর্বাহ্ন

বাঁচার আকুতি জানানো সেই হোসনা পুলিশ হেফাজতে

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : সোমবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৯
Print Friendly, PDF & Email

 

বিশেষ প্রতিনিধি, প্রবাস বার্তা: সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া সৌদি আরবে নির্যাতিত নারী গৃহকর্মী হোসনা আক্তারকে উদ্ধার করে দেশ পাঠানোর পদক্ষেপ নিচ্ছে জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের শ্রম উইং।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রী ইমরান আহমদ প্রবাস বার্তাকে জানিয়েছেন, হোসনা আক্তারের বিষয়টি জানার পর দ্রুত তাকে উদ্ধারে  সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে হোসনাকে উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে সেফহোমে রাখা হয়েছে। তাকে দেশে আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, প্রবাসে নারী কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে মন্ত্রণালয়। এরই অংশ হিসেবে ২৭ নভেম্বর সৌদিতে যৌথ কারিগরি কমিটির বৈঠকে বিষয়গুলি আলোচনা করা হবে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কয়েকটি প্রস্তাবনা দেয়া হচ্ছে বলেও জানান ইমরান আহমদ। সেগুলো কার্যকর হলে নারী কর্মীদের সুরক্ষা আরো উন্নত হবে।

এদিকে, সোমবার (২৫ নভেম্বর) জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের শ্রমকল্যাণ উইংয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের প্রেক্ষিতে সৌদি আরবে কর্মরত নারী গৃহকর্মী হোসনা আক্তারকে উদ্ধারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, প্রকাশিত সংবাদে হোসনা আক্তারের পাসপোর্ট নম্বর উল্লেখ না থাকায় হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নিকট থেকে তার পাসপোর্ট নম্বর এবং বাংলাদেশি এজেন্সির নাম ও ফোন নম্বর সংগ্রহ করা হয়। এরপর বাংলাদেশি এজেন্সির সাথে কথা বলে জানা যায়, হোসনা আক্তার সৌদি রিক্রুটিং অফিস রুয়াদ নাজরানের (লাইসেন্স নং-৩৯১৮৬১৮) মাধ্যমে প্রায় তিন মাস পূর্বে সৌদি আরবে এসেছিলেন। তাদের কাছ থেকে সৌদি এজেন্সির নাম ও ফোন নাম্বার সংগ্রহ করার পর তাৎক্ষণিকভাবে কনস্যুলেটের পক্ষ হতে নাজরান পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করা হয়।

এরপর জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট প্রতিনিধি সৌদি এজেন্সির সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করেন। এরপর জানা যায় হোসনা আক্তারের কর্মস্থল নাজরান শহরে। যা জেদ্দা থেকে প্রায় ১ হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। সৌদি এজেন্সির সাথে কথা বলে আরও জানা যায় যে, হোসনা আক্তার বর্তমানে পুলিশের নজরদারিতে এবং সেইফ হোমে নিরাপদে রয়েছেন। তাকে বাংলাদেশে প্রেরণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে মর্মে সৌদি এজেন্সি বাংলাদেশ কনস্যুলেট প্রতিনিধিকে অবহিত করেন। কনস্যুলেট প্রতিনিধিও হোসনা আক্তারের সাথে কথা বলেছেন এবং জানিয়েছেন বর্তমানে তিনি নিরাপদেই রয়েছেন।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে গৃহকর্মী হিসেবে যাওয়া পঞ্চগড়ের সুমি আক্তার গৃহকর্তার নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাইভে এসে ভাইরাল হয়েছিলেন। সম্প্রতি তাকে উদ্ধার করে দেশে ফেরত এনেছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। তার কিছুদিন যেতে না যেতেই ফের ভাইরাল হলেন সৌদি আরবে থাকা আরেক বাংলাদেশি নারী গৃহকর্মী হবিগঞ্জের হোসনা আক্তার।

সম্প্রতি বাঁচার আকুতি জানিয়ে তিনিও একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছিলেন স্বামীকে। স্ত্রীকে নিরাপদে দেশে ফেরত আনতে সরকারের কাছে আকুতি জানিয়েছিলেন তার স্বামী শফিউল্লাহ।

এরপর নিরাপদে হোসনাকে দেশে ফেরত আনতে পরিবারটিকে সার্বিক সহায়তার সিদ্ধান্ত নেয় ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews