1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০১:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

কলকাতায় ২ বাংলাদেশিকে অপহরনের অভিযোগে গেপ্তার ৩

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯
Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা, কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে দুই বাংলাদেশিকে অপহরনের অভিযোগে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতা পুলিশ। যার মধ্যে একজন নারীও রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৪ই নভেম্বর) পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিন কলকাতার পাটুলি এলাকা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে একজনকে। এর আগে উত্তর চব্বিশ পরগনার হাবড়া এলাকা থেকে আরো দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেই সাথে অপহরনের ঘটনায় ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেলও উদ্ধার করা হয়।

অপহরনের ঘটনায় গ্রেফতারকৃতরা হলেন- সেলিম, সালাউদ্দিন ও তার স্ত্রী নাসিমা বিবি। গ্রেপ্তার হওয়া নাসিমা ও সালাউদ্দিনের বাড়ী হাবরায় এবং সেলিমের বাড়ী দক্ষিন চব্বিশ পরগনা জেলার ক্যানিংয়ায় ।

এ বিষয়ে পুলিশ জানায়, ব্যবসা সংক্রান্ত কাজে কয়েক দিন আগে কলকাতায় গিয়েছিলেন বশির মিয়া নামে এক বাংলাদেশি। তিনি কাপড়ের ব্যবসা করেন, যার জন্য প্রায়ই তাকে কলকাতায় যেতে হয়। ব্যবসা সংক্রান্ত কাজে সেখানে গিয়ে সেলিমের সাথে পরিচয় হয় তার।

বেশ কিছুদিন পর বশির মিয়া আবারও কলকাতায় গেলে সেলিমের সাথে যোগযোগ করে। বশির মিয়ার সঙ্গে ছিলেন তার বাংলাদেশি বন্ধু ইলিয়াস। উঠেছিল শিয়ালদহের একটি আবাসিক হোটেলে। উদ্দেশ ছিল পরিবারের জন্য কিছু গয়না কেনা এবং সেই সাথে ব্যবসা সংক্রান্ত কাজ।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৭ই নভেম্বর) প্রতারক সেলিম তার বন্ধুদের সঙ্গে করে বশির ও ইলিয়াস হাবরায় নিয়ে যায়। এরপর একটি মোটরসাইকেল করে হাবরার এক অঙ্গাত স্থানে বশির ও ইলিয়াসকে নিয়ে যায তারা। পরবর্তীতে জানা যায়, সেটি ছিল সালাউদ্দিন ও নাসিমার বাড়ী। সেখানে তাদের আটকে রেখে ৫০ লাখ রুপি মুক্তিপন চায় সেলিমের নেতৃত্বাধীন প্রতারক চক্র। তা না হলে তাদের মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়।

এসময় বশিরের কাছে থাকা ৭ হাজার মার্কিন ডলার ও ৪৫ হাজার রুপি লুট করে নেয় তারা, পরে আরো টাকা আনতে বাধ্য করলে বশির বাসা থেকে ৬ লাখ রুপি এনে দেন তাদের।

বশির ও ইলিয়াসকে দেশে পাঠানোর জন্য এক দালালকে আনে সেলিম, বেনাপল সিমান্ত হাবরার কাছেই। সীমাস্তের কাছে এলে বশির ওই দালালদের বলে, তাদের ছেড়ে না দিলে বিএসএফ’কে সব কথা বলে দিবেন। পরে দালাল তাদের ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়।

কলকাতার শিয়ালদহ এন্টালী থানায় এ ঘটনা জানিয়ে মামলা করে বশির। পরে পুলিশ হাবরা থেকে সালাউদ্দিন ও নাসিমাকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু সেলিম পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তিতে সেলিমকে পাটুলি থেকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশের তদন্ত থেকে জানা যায়, সেলিম কুখ্যাত প্রতারক চক্রের একজন সদস্য। বাংলাদেশিদের প্রতারনা করা ও মানব পাচার করা তার কাজ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews