Print Friendly, PDF & Email

 

স্টাফ রিপোর্টার: জনশক্তি রপ্তানিকারকদের সংগঠন বাংলাদেশ  এসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিস (বায়রা) মহাসচিবের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে তার অপসারণ চেয়েছে সংগঠনটির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যসহ সাধারণ সদস্যদের বড় একটা অংশ।

বুধবার (৬ নভেম্বর) সকাল ১১টায় বায়রা ভবনে সংগঠনটির সাধারণ সদস্যদের নিয়ে গঠিত ‘বায়রা তৃণমূল ঐক্যফ্রন্ট’ আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় বায়রার মহাসচিবের অপসারণ চায় সাধারণ সদস্যরা।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, বায়রা মহাসচিব কর্তৃক মালয়েশিয়ার সরকারকে শিষ্টাচার বহির্ভূত অবৈধ পত্র লিখে বায়রাকে সরকারের বিরুদ্ধে দাঁড় করিয়ে বায়রা ও তার সদস্যদের ক্ষতি করেছে মহাসচিব শামীম আহমেদ চৌধুরী নোমান।

এ সময় বক্তারা বলেন, বায়রা মহাসচিবের উচিত স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করা। আর তিনি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে না চাইলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপে তার অপসারণ চান সংগঠনটির সদস্যরা। এসময় অনতিবিলম্বে বায়রার বর্তমান কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে নতুন করে সুষ্ঠু ও সবার গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচনের দাবি করেন তারা।

বক্তারা বলেন, সুষ্ঠু, সুন্দর ও সবার গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের মাধ্যমে বায়রার পরবর্তী যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করে বর্তমান সকল সমস্যার সমাধান করতে হবে করতে হবে অন্যথায় সংগঠনটির চলমান সমস্যাগুলো সমাধান করাসম্ভব নয়। এবং কেউ যেন স্বনামধন্য এই সংগঠনটির নাম ভাঙ্গিয়ে ব্যক্তি চরিতার্থ কাজে লিপ্ত না হতে পারে সেজন্য বায়রার সকল সাধারণ সদস্যদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান বক্তারা।

একপর্যায় জনশক্তি রপ্তানিকারকদের সংগঠন বায়রা ও তার সকল সদস্যদের জন্য দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে ভবিষ্যতের সাফল্য কামনা করা হয়।

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন বায়রার নির্বাহী কমিটির সিনিয়র সদস্য আব্দুল হাই, বায়রার সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি ড. মোহাম্মদ ফারুক, বায়রা তৃণমূল ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক আব্দুল আলিম, সদস্য সচিব কে এম মোবারক উল্লাহ শিমুল, বায়রার সাবেক অর্থ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম, বায়রার যুগ্ম-মহাসচিব এডভোকেট সাজ্জাদ হোসেন, অর্থ সম্পাদক শওকত হোসেন সিকদার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক এস এম নাজমুল হক, ফোরাব সভাপতি টিপু সুলতান, মহাসচিব আরিফুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ মহিউদ্দিনসহ বায়রার নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং সাধারণ সদস্যরা।

উল্লেখ্য, গত ২৭ অক্টোবর মালয়েশিয়া সরকারের দুই মন্ত্রণালয়ে একবটি চিঠি দেন বায়রার মহাসচিব। শ্রমবাজারের পদ্ধতি নির্ধারণসহ নানা বিষয়ে অভিযোগ এবং পরামর্শ দেন চিঠিতে। বায়রা মহাসচিবের দেয়া চিঠিকে এখতিয়ার বহি:ভূত বলে উল্লেখ করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। এবং সতর্ক করে বায়রার সভাপতি বরাবর শনিবার ( ২ নভেম্বর ) একটি চিঠি দেন মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

 

bdnewspaper24