1. monir212@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
  3. merajhgazi@gmail.com : News Desk : Meraj Hossen Gazi
  4. desk@probashbarta.com : News Desk : News Desk
শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১১:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মালদ্বীপে বাংলাদেশি ব্যাংকের শাখা চায় প্রবাসীরা মালয়েশিয়ায় হাইকমিশনের উদ্যোগে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন দশ দিনের সফরে গ্রীস ও দুবাই গেলেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী মানব পাচারের কারণ খুঁজে সমাধানের আহ্বান বাংলাদেশের মালদ্বীপের উপ-রাষ্ট্রপতির সাথে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর বৈঠক “মালদ্বীপে বাংলাদেশি কর্মীরা বিভিন্ন সেক্টরে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে” ইতালিতে কর্মস্থলে বাংলাদেশির মৃত্যু মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ১২৯ অভিবাসী আটক মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ-কোরিয়া কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিদর্শন ঢাকা-ব্যাংকক রুটে আবারো চালু হচ্ছে বিমানের ফ্লাইট

অতিষ্ঠ হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা ছাড়ছেন বাংলাদেশী প্রবাসীরা

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৯
Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা, বিশেষ প্রতিবেদন: সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদেশী অভিবাসীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ এবং ব্যক্তিগত নানা ইস্যুতে অহরহ ঘটছে হত্যাকাণ্ড।

এর ফলে দক্ষিণ আফ্রিকা ত্যাগ করে পৃথিবীর অন্য কোন শান্তিপূর্ণ দেশে চলে যেতে চায় এসকল অভিবাসীরা।তাদের দাবি দক্ষিণ আফ্রিকা কোনভাবেই অভিবাসীদের জন্য এখন নিরাপদ নয়।

তাই দক্ষিণ আফ্রিকা ত্যাগের জন্য জাতিসংঘের সহযোগিতা কামনা করে কেপটাউনে জাতিসংঘের অফিসে অবস্থান নিয়েছেন বাংলাদেশীসহ অন্যান্য অভিবাসীরা।

গত মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সকাল থেকে কেপটাউনের লং-স্ট্রিটের গ্রীন মার্কেট এলাকায় অবস্থিত জাতিসংঘের অফিসে অভিবাসীদের ক্রমান্বয়ে ভিড় বাড়তে থাকে। ইতিমধ্যে আফ্রিকা কন্টিনেন্টালের বিভিন্ন দেশসহ বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের প্রায় হাজারখানেক লোক জড়ো হয়েছে সেখানে।

 

সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় গত চার বছরে ৪০০ এর বেশি বাংলাদেশীকে হত্যা করা হয়েছে। চলতি বছরে এখন পর্যন্ত ৮৮জন বাংলাদেশির লাশ দেশে পাঠানো হয়েছে। এবং ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে সংখ্যাটি মোট ৪৫২ জনে এসে পৌঁছেছে। এখানে যারা মারা গেছে তাদের প্রায় ৯৫ শতাংশ হত্যার শিকার হয়েছেন।

আর তাই অতিষ্ঠ হয়ে দেশটিতে জাতিসংঘের আঞ্চলিক অফিসের সামনে অবস্থান করছেন বাংলাদেশিসহ অনেক দেশের অভিবাসীরা। তারা জাতিসংঘের অফিসের বিভিন্ন ফ্লোরে কম্বল নিয়ে এসে রাতযাপনও করছেন।তাদের সকলেরই একটাই দাবি দক্ষিণ আফ্রিকা কোনভাবেই অভিবাসীদের জন্য এখন নিরাপদ নয়।

অবস্থান নেয়া বাংলাদেশিসহ অন্যান্য অভিবাসীদের অভিযোগ, সম্প্রতি বিদেশি ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় অভিবাসীরা এদেশে নিরাপদ নয়। ঝুঁকি নিয়ে চলাফেরা করতে হয় বর্তমানে। প্রতিনিয়ত বিদেশি নাগরিকদের মৃত্যুর মুখে অবস্থান করতে হয়। তাই দক্ষিণ আফ্রিকাতে আর বসবাস করতে চান না তারা।

দক্ষিণ আফ্রিকা ত্যাগ করে পৃথিবীর অন্য কোন শান্তিপূর্ণ দেশে চলে যেতে জাতিসংঘের সহযোগিতা কামনা করছেন এসকল অভিবাসীরা। তাই বর্তমানে এসাইলাম ও রিফুজি স্ট্যাটাসসহ যাবতীয় কাগজপত্র জাতিসংঘের অফিসে প্রদর্শন করছেন তারা।

অবস্থানকারী বিদেশী নাগরিকদের দাবি, জাতিসংঘ যতক্ষণ সমস্যা-সমাধান না করবে ততক্ষণ তারা জাতিসংঘের রিফুজি অফিসের সামনে অবস্থান করবে। এ ব্যাপারে জাতিসংঘের অফিস থেকে আনুষ্ঠানিক এখনো কিছুই বলা হয়নি। তবে বর্তমানে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জোর দিয়েই এ খবর প্রকাশ করছে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর
© 2018 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার বেআইনি
Theme Customized BY LatestNews