Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা, লেবানন: লেবাননে অবৈধভাবে বসবাসকারীদের স্বেচ্ছায় দেশে ফিরে যাওয়ার জন্য শর্ত সহজ করে দিয়েছে লেবানন সরকার। ফলে সহজেই লেবানন থেকে দেশে ফিরতে পারবে অবৈধ প্রবাসীরা।

সম্প্রতি লেবাননের রাজধানী বৈরুতে দূতাবাসের হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

রাষ্ট্রদূত বলেন, দেশে ফিরে যাওয়ার জন্য আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত তিন ধাপে আবেদন করতে পারবেন লেবাননে বসবাসকারী অবৈধ বাংলাদেশি প্রবাসীরা। এক্ষেত্রে আবেদনকারী পুরুষ কর্মীর জন্য এক বছরের জরিমানা বাবদ ২৬৭ ডলার এবং নারী কর্মীর জন্য ২০০ ডলারসহ বিমানের টিকিট বাবদ ৩০০ ডলার নিয়ে দূতাবাসে স্বশরীরে আবেদন করতে হবে।

আবেদন করতে প্রয়োজন হবে পাসপোর্ট কিংবা আকামার ফটোকপি, ৪ কপি ছবি এবং সেই সাথে জরিমানার টাকা।

লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার

 

এই কর্মসূচী তিনটি ধাপে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চালু থাকবে। প্রথম ধাপ শুরু হয়েছে  ১৫,১৬ ও ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে এবং দ্বিতীয় ধাপ শুরু হবে নভেম্বর থেকে ও তৃতীয় ধাপ শুরু হবে ডিসেম্বর থেকে যা চলবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

রাষ্ট্রদূত বলেন, লেবাননে বসবাসকৃত অসংখ্য অবৈধ প্রবাসী দূতাবাসে অনুরোধ করেছে যে সরকারের সাথে আলোচনার মাধ্যমে যাতে স্বল্প খরচে দেশে ফিরে যাওয়া যায় সেই ব্যবস্থা করার জন্য। তারই প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্মকর্তা লেবাননের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে এই বিশেষ সুযোগের ব্যবস্থা করেছে। যা শুধুমাত্র বাংলাদেশি অবৈধ প্রবাসীদের জন্য প্রযোজ্য।

এছাড়া যাদের নামে চুরি, মাদক ও ফৌজদারি মামলা অথবা আদালতে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি রয়েছে তারা এই কর্মসূচির সুযোগ নিয়ে দেশে ফিরে যেতে পারবেন না। তাদেরকে লেবাননের আইনি প্রক্রিয়ার মধ্যেই দেশে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে এবং দালাল কিংবা অন্য কারো মাধ্যমে আবেদন গ্রহণ হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

আকামা বিহীন যে সকল প্রবাসীরা অবৈধভাবে লেবাননে বসবাস করছে কিংবা কাজ করে যাচ্ছে তাদের দেশে ফিরে যাওয়ার জন্য দালালের খপ্পরে পড়ে প্রতারণার শিকার না হয়ে সশরীরে দূতাবাসে হাজির হয়ে আবেদন করার জন্য অনুরোধ করেছেন রাষ্ট্রদূত।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘দেশে যাওয়ার জন্য যারা আবেদন করবেন, ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার পর তাদেরকে অবশ্যই দেশে চলে যেতে হবে’।

উল্লেখ্য, বর্তমানে প্রায় ৩০ থেকে ৪০ হাজার অবৈধ কর্মী লেবাননে বসবাস করছে যাদের মধ্যে অনেকেরই আকামা নেই। দেশটিতে বেশ কয়েক বছর ধরে আকামা বিহীন কাজ করে যাচ্ছে এসকল অবৈধ প্রবাসীরা।

 

bdnewspaper24