Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা:  মেধা ও দক্ষতা কাজে লাগিয়ে বিদেশের মাটিতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে মেরিটাইম বিষয়ে ডিগ্রী অর্জনের লক্ষ্যে ২৫জন প্রশিক্ষনার্থীকে চীনে পাঠাচ্ছে বিএমইটি।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষন ব্যুরো (বিএমইটি) এবং চীনের জিয়াংসু মেরিটাইম ইনস্টিটিউট এর মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকের আওতায় মেরিটাইম বিষয়ে ডিগ্রী অর্জনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ থেকে এই প্রথম ২৫জন প্রশিক্ষণার্থী চীন যাচ্ছে।

সমঝোতা স্মারক অনুসারে চীন সরকারের বৃত্তি নিয়ে প্রশিক্ষণার্থীরা ৪ বছর মেয়াদী এই কোর্সের প্রথম বছর বিএমইটি পারিচালিত ৬টি বাংলাদেশ ইনষ্টিটিউট অফ মেরিন টেকনোলজি (আইএমটি) থেকে সমাপণ করে পরবর্তী তিন বছর চীনের জিয়াংসু মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে কোর্স সম্পন্ন করবে।

কোর্স সম্পন্নকারী প্রশিক্ষণার্থীরা চায়নাশীপে কাজ করার সুযোগ পাবে। প্রথম ব্যাচ কোর্সটি সফল ভাবে সম্পন্ন করতে পারলে পরবর্তীতে প্রতি বছর ৭৫জন করে প্রশিক্ষণার্থী চীনে এই ডিগ্রী অর্জনের সুযোগ পাবে।

আইএমটি থেকে নির্বাচিত ২৫জন প্রশিক্ষণার্থীর মেরিটাইম বিষয়ে ডিগ্রী অর্জনের লক্ষ্যে চীনে গমন উপলক্ষে বুধবার (৯অক্টোবর) বেলা ১১টায় মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ সেলিম রেজা বলেন, বাংলাদেশের মানুষ অত্যন্ত মেধাবী। আর এই মেধা ও দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে দেশে-বিদেশে উন্নত প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে বিদেশের মাটিতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে হবে এবং একেকজন প্রশিক্ষণার্থীকে শুভেচ্ছা দূতের মতো কাজ করতে হবে।

সচিব মোঃ সেলিম রেজা বলেন, ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে বাংলাদেশ সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফলে মেরিটাইম বিষয়ে প্রশিক্ষণের জন্য বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে সম্প্রতি একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।পরবর্তী ব্যাচের চীনে ডিগ্রী অর্জনের সুযোগ নির্ভর করছে প্রথম ব্যাচের সফলতার উপর উল্লেখ করে তিনি প্রশিক্ষণার্থীদের এই প্রশিক্ষণে অত্যন্ত মনযোগী হয়ে ভালো ফলাফল করার আহবান জানান।

দক্ষ কর্মী তৈরিতে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে সচিব বলেন, বর্তমান সরকার দেশে-বিদেশে যে উন্নত প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি করেছে তা কাজে লাগিয়ে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে হবে।

তিনি আরো বলেন, যথাযথ প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ কর্মী তৈরি করে বৈদেশিক কর্মসংস্থান নিশ্চিত করা হলে ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রের মর্যাদা লাভ করবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষন ব্যুরো (বিএমইটি)’র মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) শেখ রফিকুল ইসলাম, মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোঃ সারোয়ার আলম, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষন ব্যুরো (বিএমইটি)’র পরিচালক ড. মোঃ নুরুল ইসলাম প্রমুখ।

bdnewspaper24