Print Friendly, PDF & Email

 

স্টাফ রিপোর্টার: বুয়েটের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সাথে একমত পোষণ করে বর্তমান ভিসির অপসারণ চেয়েছে বুয়েট শিক্ষক সমিতি।

এ সময় শিক্ষক সমিতির নেতারা উপাচার্যের অযোগ্যতার কারণে পদত্যাগের দাবি জানান এবং বলেন পদত্যাগ করতে না চাইলে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে উপাচার্যের অপসারণ চান তারা।

বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সামনে এসে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান শিক্ষক সমিতির নেতারা। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে সকাল ১০ টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত বৈঠক করেন তারা। বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে একাত্মতা পোষণ করতে গিয়ে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ কে এম মাসুদ। এ সময় তিনি বলেন, ‘বুয়েটে দলীয়ছাত্র এবং শিক্ষক রাজনীতি মুক্ত করতে সরকারের প্রতি আহবান এবং হলগুলোতে বহিরাগতদের বাহির করতে সরকারের হস্তক্ষেপ চায় বুয়েট শিক্ষক সমিতি’।
এদিকে বুয়েট শিক্ষক সমিতির ৪০০ জনের মধ্যে ৩০০ জন শিক্ষকই উপাচার্যের অপসারণ দাবির সিদ্ধান্তে একমত হয়েছেন। এবং উপাচার্যের অযোগ্যতার কারণে পদত্যাগ অথবা পদত্যাগ না করলে অপসারণ চায় বুয়েট শিক্ষক সমিতি।
এরপর বুয়েট ক্যাম্পাসের সামনে শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ এর নৃশংস হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু ও দ্রুত বিচারের দাবীতে মানববন্ধন করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি
এর আগে একটি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে নতুন করে ১০ দফা জানিয়েছে আন্দোলনরত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
একই সঙ্গে আবরার হত্যার প্রতিবাদে বুধবার সন্ধ্যা সাতটায় বুয়েট ক্যাম্পাসে মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচি ঘোষণা দেয়া হয় ওই সংবাদ সম্মেলনে। পাশাপাশি দেশের সকল প্রতিষ্ঠানকে এই কর্মসূচি পালনের আহবান জানান আন্দোলনরত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
উল্লেখ্য গত রবিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে বুয়েটের কিছু শিক্ষার্থী। এর পর থেকে এ হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশের সকল ক্যাম্পাসে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা।
bdnewspaper24