Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা, বিশেষ প্রতিবেদন: ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে দেশে প্রেরিত প্রবাসীদের কষ্টার্জিত রেমিট্যান্সের পরিমাণ ৪ দশমিক ৫৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

সম্প্রতি সরকারি এক তথ্যবিবরণীতে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব মতে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের সেপ্টেম্বর মাসে প্রবাসীরা ১ দশমিক ৪৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিটেন্স দেশে প্রেরণ করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সূত্র মতে গত অর্থবছরের ২০১৮-১৯ মোট রেমিটেন্সের পরিমাণ ছিল ১৬ দশমিক ৪২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

দেশের অর্থনীতির বড় উৎস প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স বিদায়ী অর্থবছরে (২০১৮-১৯) এ সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স পাঠিয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন প্রবাসীরা।১৬ দশমিক ৪২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার পাঠিয়ে আগের সকল রেকর্ড ভেঙ্গে ছিলেন রেমিটেন্স যোদ্ধারা। দেশের ইতিহাসে এক অর্থবছরে সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স এর পরিমান ছিল এটিই।

বাংলাদেশের উদীয়মান অর্থনীতিতে প্রবাস আয় অর্থাৎ রেমিটেন্সের গুরুত্ব অপরিসীম। বাংলাদেশের রিজার্ভ মুদ্রায় প্রায় অর্ধেক প্রবাসীদের রেমিট্যান্স। রেমিট্যান্স প্রেরণের ক্ষেত্রে ২ শতাংশ প্রণোদনা এবং দক্ষ জনশক্তি রপ্তানি বৃদ্ধি পাওয়ায় রেমিটেন্স প্রবাহ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এছাড়াও ঈদ-পূজা এবং বিভিন্ন উৎসবকে কেন্দ্র করে প্রবাসীরা দেশে অধিক পরিমানে রেমিটেন্স প্রেরণ করে থাকেন। তবে অন্যান্য বছরে ঈদের পরে রেমিটেন্স প্রবাহে ভাটা টান থাকলেও এবার ঈদের পর রেমিটেন্স বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বৈধ পথে রেমিটেন্স পাঠানোয় প্রবাসীদের উৎসাহ দিতে নতুন অর্থবছরের বাজেটে ২ শতাংশ ইন্সেন্টিভ রাখা হয়েছে। যার ফলে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স সামনে আরো বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন সংশ্লিষ্টরা।

bdnewspaper24