Print Friendly, PDF & Email

 

 

স্টাফ রিপোর্টার:

প্রবাসীদের সেবায় অতিরিক্ত কতো লোকবল লাগবেশ্রম কাউন্সেলরদের কাছে সেই তালিকা চেয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। অনেক দেশে অধিক সংখ্যক কর্মী আছে, সেখানে সেবা দিতে কী সহায়তা প্রয়োজন তা লিখিত জানাতে বলেন তিনি।

মঙ্গলবার ( ২০ আগস্ট) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রণালয় ব্রিফিং হলে তিন দিনের শ্রম ( প্রবাসী) কল্যাণ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন মন্ত্রী। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের শ্রম কাউন্সেলর ও প্রথম সচিবরা  ( শ্রম) অংশ নেন এই সম্মেলনে ।

শ্রম কল্যাণ সম্মেলন

প্রতিনিধিদের মন্ত্রী বলেন, “আপনারা আগামী দশ বছরে সংশ্লিষ্ট দেশে কতো কর্মী চাহিদা আছে, সে দেশে কী কী কাজ বা কর্মসংস্হান সৃষ্টি হবে সে বিষয়ে গবেষণা করতে হবে। এই তথ্য দিন, তাহলে সেই বিষয়ে কাজ করা হবে।”

ইমরান আহমদ বলেন, “মানব পাচার আইনে মামলা না নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি লিখে আবার চিন্তা করেছি সঠিক করেছি কিনা? কারণ অনেক রিক্রুটিং এজেন্সি ও ট্রাভেল এজেন্সি মানব পাচারে জড়িত। আবার অনেক কর্মীকে অতিরিক্ত বেতনের কথা বলে বিদেশ পাঠানো হয়। কর্মী গিয়ে কাজও পায় না, আর বেতন তো দূরের কথা। আবার এক কাজের কথা বলে অন্য কাজ দেয়া হয়। এসবই ক্রাইম। এই চিঠি লেখার পর বুঝতে পেরেছি মিসটেক হয়েছে।”

সম্মেলনে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্হান মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, বায়রা সভাপতি ও সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদ, সংসদ সদস্য আয়সা ফেরদৌস, মন্ত্রণালয়ের সচিব রৌনক জাহান, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদদ জুলহাস, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো- বিএমইটি মহাপরিচালক মোঃ সেলিম রেজা বক্তব্য রাখেন।

শ্রম কল্যান সম্মেলন

বায়রা সভাপতি বেনজীর আহমদ বলেন, কিছু শ্রমবাজার চালুর বিষয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে দূতাবাসের কর্মকর্তারা। এই তথ্যটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানাতে মন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। বেনজির আহমদ বলেন, মালয়েশিয়া শ্রমবাজরে আবারো আগের সিন্ডিকেট সক্রিয় হচ্ছে । তারা বাজারটি দখলে নেয়ার চেষ্টা করছে। বাজারটি যেনো সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকে সে বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপ চান বায়রা সভাপতি।

 

bdnewspaper24