Print Friendly, PDF & Email

 

 

স্টাফ রিপোর্টার: সংগঠনের নীতি বহির্ভূত আচরণের দায়ে সদ্য বহিষ্কার হয়ে দেশে ফিরে নান অপপ্রচারের অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ সাংবাদিক ফোরাম ওমানের (বিএসএফও) সাবেক সদস্য বাইজিদ আল হাসান এর বিরুদ্ধে।

সংগঠনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ওমান কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী জসিম উদ্দিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ওমান কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ দূতাবাসের আইন শাখার কর্মকর্তা মাসুদ করিমসহ ওমানের বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং বাংলাদেশ সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি এইচ এম হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ও অনলাইন পোর্টালে অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে নানা মাধ্যমে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে । এসব অপপ্রচারে কান না দেয়ার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন বাংলাদেশ সাংবাদিক ফোরাম।

সংগঠনের সভাপতি এইচ এম হুমায়ুন কবির জানান, সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ,  নিজেকে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ওমানের বিভিন্ন সম্মানিত নাগরিককে ভয়-ভীতি দেখানোর অভিযোগ রয়েছে বায়েজিদের বিরুদ্ধে।

বিজ্ঞপ্তিতে ওমান সাংবাদিক ফোরাম সভাপতি বলেন, ‘দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই বাংলাদেশ দূতাবাস ওমান অতীতের যেকোনো সময়ের চাইতে অনেক বেশি কার্যকরী এবং প্রবাস বান্ধব আর সে কি না সেই দূতাবাসের বিপক্ষে অপপ্রচার চালাচ্ছে ।’

সব শেষ বাংলাদেশ সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি এইচ এম হুমায়ুন কবির , অপপ্রচারে কান না দেয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। সামাজিক মাধ্যমে বায়েজিদের অপপ্রচার  রোধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বায়েজিদ আল হাসানের বক্তব্য: এবিষয়ে বায়েজিদ আল হাসানের প্রবাস বার্তাকে বলেন, ‘আমি বাইজিদ আল-হাসান, দেড় বছর যাবত ওমানে অত্যন্ত সুনামের সাথে একজন সংবাদকর্মী হিসেবে কাজ করছি। শুধুমাত্র দোকান উদ্ভোদন আর ইফতার মাহফিলের পেমেন্ট নিউজ না করে সবসময় চেষ্টা করেছি প্রবাসীদের সুখদুঃখ মিডিয়ায় তুলে ধরতে। প্রবাসীদের নিয়ে আমার নিউজ গুলোর কারনে অতি অল্প সময়ে ওমানে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করায় আমার জন্য কাল হয়ে যায়। এমতাবস্থায় ওমানের কিছু সুবিধাবাদী হলুদ সাংবাদিক আমার নামে দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়ায় অপপ্রচার চালাতে থাকে। এরপর আমি যখন তিনমাস আগে দেশের সেরা টিভি চ্যানেল “সময় টিভি” তে ওমান প্রতিনিধি হিসেবে অফিসিয়াল নিয়োগপ্রাপ্ত হই, তখন তাদের আরো বেশি প্রতিহিংসার শিকার হই। এখন অন্য কোন টিভির পরিচয় দেয়ার প্রশ্নই উঠে না।’

বায়েজিদ বলেন, ‘তাদের আরেকটি অপপ্রচার হচ্ছে আমাকে নাকি সাংবাদিক ফোরাম থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এটা সম্পুর্ন মিথ্যা এবং হুমায়ুন কবির এর ব্যক্তিগত আক্রোশ পূরণ এর জন্য এই নোংরামি, কারন সাংগঠনিকভাবে আমাকে বহিষ্কার করতে হলে আমার অপরাধ প্রমাণ সাপেক্ষে শোকজ করবে, এরপর আমি সংশোধন না হলে সাংগঠনিক নিয়ামুনাজায়ী বহিষ্কার করবে। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হচ্ছে আমাকে এইসব কোনো কিছুই না জানিয়ে রাতের আধারে সম্পুর্ন হুমায়ুন এর একক সিদ্বান্তে বহিষ্কার করেছে এই মর্মে সোস্যাল মিডিয়ায় অপপ্রচার চালায়। যা সংগঠন এর সম্পুর্ন নিয়মবহির্ভূত কাজ।’

বায়েজিদ বলেন, ‘আমি এমতাবস্থায় তার এইসব অপপ্রচার এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

bdnewspaper24