Print Friendly, PDF & Email

 

বিশেষ প্রতিনিধি, প্রবাস বার্তা: মালয়েশিয়ায় আজ (১ জুলাই) থেকে চালু হওয়া রিপ্লেসমেন্ট ভিসা আপাতত বাংলাদেশের জন্য নয়। এ প্রসঙ্গে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারান জানিয়েছেন বাংলাদেশের সাথে আরো আলোচনা করতে হবে।

সোমবার দেশটিতে এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি। মানবসম্পদ মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশের অনেক কর্মী দেশটিতে গিয়ে কোম্পানী ছেড়ে চলে যায়। এজন্য  বাংলাদেশের বিষয়ে আরো আলোচনা প্রয়োজন রয়েছে।

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী

যেসকল দেশের জন্য কলিং ভিসা চালু আছে, সেসব দেশ থেকে রিপ্লেসমেন্টে কর্মী নিয়োগ করা যাবে। মন্ত্রী বলেন, রিপ্লেসমেন্টের জন্য কোম্পানী পরিদর্শন করে অনুমোদন দেয়া হবে। তবে এ জন্য নতুন করে কোটা নিতে হবে না।

তখন বলা হয়, একটি কোম্পানিতে সরকার অনুমোদিত ১০০ জন বিদেশি কর্মীর মধ্যে ২০ জন কর্মী দেশে চলে গেছেন বা অন্যত্র গেছেন। ঐ কোম্পানি চাইলে ইতিমধ্যে চলে যাওয়া ২০ জন কর্মীর স্থানে ২০ জন কর্মী নিয়োগ দিতে পারবে, সেক্ষেত্রে নতুন করে মন্ত্রণালয়ে কোটার আবেদন করতে হবে না।

গেলো ৩১ মে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে রিপ্লেসমেন্ট ভিসা চালুর ঘোষণা দেয়া হয়। বলা হয়, ১ জুলাই থেকে এই পদ্ধতি কার্যকর হবে। আশা করা হচ্ছিলো বাংলাদেশ এই সুযোগ পাবে।

bdnewspaper24