Print Friendly, PDF & Email

 

প্রবাস বার্তা ডেস্ক : সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের একটি নাইটক্লাব থেকে বাংলাদেশি চার তরুণীকে উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ।

বুধবার দুবাইয়ের আল মুরাক্কাবাত এলাকার একটি নাইটক্লাবে অভিযান চালিয়ে ১৯ নারী এবং পাঁচজন কর্মচারিকে আটক করা হয়। আটককৃত নারীদের মধ্যে বাংলাদেশি চারজনের বয়স ১৬ থেকে ১৭ বছরের মধ্য।

দুবাই পুলিশের বরাত দিয়ে গাল্ফ নিউজ জানিয়েছে, এই নারীদের ডান্সের জন্য আনা হলেও তাদেরকে যৌনকাজে বাধ্য করা হতো।

যদিও গেলো মার্চ মাসে পুলিশ সতর্ক করেছিলো, কোন  ডান্সক্লাবে কম বয়সী নারীদের কাজ করানো যাবে না।

বাংলাদেশি চার তরুণীকে বয়স বাড়িয়ে পাসপোর্ট করা হয়। বাংলাদেশে একটি দালাল চক্র এই কাজ করেছে বলে জানায় দুবাই পুলিশ।

১৭ বছর বয়সী বাংলাদেশি এক তরুণী পুলিশের কাছে  জানান, সংসারে অভাবের কারণেই দুবাই এসেছেন তিনি। বলেন, পাসপোর্ট এবং সকল খরচ বহন করেছে এক ব্যক্তি। অন্য এক মেয়ের সাথে তিনি এখানে এসেছেন। সংসারে অভাবের কারণেই ডান্সের মতো পেশায় নিয়োজিত হওয়ার সম্মত হয়েছেন, বলছিলেন ঐ তরুণী।

দুবাইতে আসার চারদিনের মধ্যেই তাদের ডান্সে যুক্ত করা হয়। এরপর মাসে অন্তত চার জনের সাথে অনৈতিক সম্পর্কে বাধ্য করা হতো। এই সবকিছু ঐ ক্লাবের ম্যানেজার সম্পন্ন করতো বলে জানিয়েছেন তরুণী।

বৃহস্পতিবার আটককৃতদের দুবাই কোর্টে হাজির করা হয়। তরুণীদের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছে এবং আটক নাইটক্লাবের সদস্যদের বিরুদ্ধে মানবপাচারের আইনে মামলা করা হয়েছে। ১৮ জুন পরবর্তী শুনানীর দিন ঠিক করা হয়েছে।

 

 

bdnewspaper24