Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রবাসে প্রতারিত হয়ে সব হারিয়ে দেশে ফিরেছেন ১৮০ জন রেমিট্যান্স যোদ্ধা।  চুক্তি বা প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী  কাজ এবং বেতন না পাওয়া,  নিয়োগদাতার নির্যাতনের কারণে দেশে ফিরেছেন অনেকেই।  আবার কাগজপত্র থাকার পরও  সংশ্লিষ্ট দেশের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ দেশে পাঠিয়ে দিয়েছে অনেক।

 বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) বিভিন্ন দেশ থেকে কয়েকটি  ফ্লাইটে দেশে ফিরেন তারা। ফেরত আসা কর্মীদের মধ্যে  পুরুষ  ১৬৪ জন এবং ১৬ জন নারী  জন।

প্রতারিতদের মধ্যে ওমান থেকে ১০৬ জন, কাতার থেকে ২৯ জন, মালদ্বীপ থেকে ১০ জন, সংযুক্ত আরব-আমিরাত থেকে ৫ জন, আলজেরিয়া থেকে ৩ জন, ফ্রান্স থেকে ১ জন। এছাড়াও  কয়েকটি দেশ থেকে ১০ জনসহ ১৬৪ জন পুরুষ কর্মী দেশে  ফেরত এসেছেন।

 একই দিন সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ১৬ জন, ওমান থেকে ৫ জন এবং লেবানন থেকে ২ জন নারী কর্মীও দেশে এসেছেন।

বরাবরের মতো এবারও সব হারিয়ে ফিরে আসা  কর্মীদের বিমানবন্দরে জরুরি সেবা দিয়েছে বেসরকারি সংস্থা  ব্র্যাকের মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম। মাইগ্রেশন  প্রোগ্রাম প্রধান শরিফুল হাসান বলেন, প্রতিনিয়ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতারিত হয়ে    অনেক অভিবাসী কর্মীরা খালি হাতে ফিরে আসছেন। দেশে ফেরার পর  তাদের পাশে কেউ দাঁড়ায় না।  ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম  সব সময় তাদের পাশে আছে।

শরিফুল হাসান জানান, এখন পর্যন্ত  ২ হাজার ৫০০ জনকে জরুরি সহায়তা দিয়েছে ব্র্যাকের মাইগ্রেশন  প্রোগ্রাম ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here